মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
১ শ্রাবণ ১৪৩১
টুপিতে মুখ লুকিয়ে আদালত ছাড়লেন আবেদ আলী
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৯ জুলাই, ২০২৪, ৯:১০ পিএম |

টুপিতে মুখ লুকিয়ে আদালত ছাড়লেন আবেদ আলী প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে করা মামলায় দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলীসহ ছয় আসামি। পরে আদালতের নির্দেশে তাদের কারাগারে নেয়ার সময় টুপিতে মুখ লুকিয়ে রাখেন আবেদ আলী।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বিকেল ৩টার পর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাদের ১৬৪ ধারায় আলাদা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে সন্ধ্যায় তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।
 
কারাগারে নেয়ার জন্য আদালত থেকে আসামিদের গাড়িতে তোলা হয়। এ সময় সৈয়দ আবেদ আলীকে নিজের মাথার টুপি দিয়ে মুখ ঢেকে আদালত থেকে বের হতে দেখা যায়। এ অবস্থাতেই গাড়িতে ওঠেন তিনি। তবে বাকিরা স্বাভাবিকভাবেই গাড়িতে ওঠেন।
 
আসামিরা হলেন- চক্রের সক্রিয় সদস্য সৈয়দ আবেদ আলী (৫২), মো. খলিলুর রহমান, সাজেদুল ইসলাম (৪১), মো. সাখাওয়াত হোসেন (৩৪), সাইম হোসেন (২০) ও লিটন সরকার (২৫)। আরেক আসামি আবু সোলেমান মো. সোহেলের (৩৫) জবানবন্দি দেয়ার কথা থাকলেও তিনি আদালতে তা দেননি।
 
এর আগে দুপুরে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে রাজধানীর পল্টন থানায় করা মামলায় গ্রেফতার ১৭ আসামিকে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। এদের মধ্যে পিএসসির সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলীসহ সাত আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হন। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাইবার ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড অপারেশনের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার জুয়েল চাকমা তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। আলাদা সাত ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। তবে আসামি আবু সোলেমান মো. সোহেলের (৩৫) জবানবন্দি দেয়ার কথা থাকলেও তিনি আদালতে তা দেননি।
এছাড়া অপর ১০ আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তিনি। পরে ১০ আসামির জামিন চেয়ে আবেদন করেন আইনজীবীরা। রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত ১০ আসামির জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
 
১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়া সাত আসামি হলেন: পিএসসির সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী, অফিস সহায়ক খলিলুর রহমান, অফিস সহায়ক (ডিসপাস) সাজেদুল ইসলাম, ব্যবসায়ী আবু সোলায়মান মো. সোহেল, ব্যবসায়ী সহোদর সাখাওয়াত হোসেন ও সায়েম হোসেন এবং বেকার যুবক লিটন সরকার।
 
কারাগারে পাঠানো ১০ আসামি হলেন: পিএসসির উপপরিচালক মো. আবু জাফর ও মো. জাহাঙ্গীর আলম, সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর কবির, নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের নিরাপত্তা প্রহরী শাহাদাত হোসেন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল টেকনিশিয়ান মো. নিয়ামুন হাসান, নোমান সিদ্দিকী, প্রিয়নাথ রায়, মো. জাহিদুল ইসলাম, মো. মামুনুর রশীদ এবং সৈয়দ সোহানুর রহমান সিয়াম।
 
বিসিএসের প্রশ্নফাঁস নিয়ে পিএসসির বিরুদ্ধে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশের পর ফেসবুকে সৈয়দ আবেদ আলীর পোস্টগুলো ভাইরাল হতে থাকে। এ ঘটনায় সোমবার (৮ জুলাই) রাতে পুলিশ বাদী হয়ে পল্টন মডেল থানায় বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন আইনে মামলা করে। মামলায় ১৭ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।












সর্বশেষ সংবাদ
রাজাকারদের ভূমিকা সম্পর্কে এরা জানে?
কুমিল্লায় জোড়া খুনের মামলায় ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড
কুবিতে এক দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল
কুবিতে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল
কোটা আন্দোলন: নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাবির হলে থাকবেন শিক্ষকরা
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
আমার বাসার কাজের লোক ৪০০ কোটি টাকার মালিক
লাইসেন্সবিহীন হাসপাতালে ভূয়া বিল, ভুয়া ডাক্তার
জুন মাসে ৬ খুন কুমিল্লায়
উপজেলা পরিষদ এসোসিয়েশন কুমিল্লার নতুন কমিটি
কুমিল্লায় উল্টো রথযাত্রা
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft