মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
১ শ্রাবণ ১৪৩১
ছুটি ছাড়াই বিদেশে মাদ্রাসা শিক্ষক
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ১২:৫২ এএম |



প্রদীপ মজুমদার  ।।
ছুটি ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণের অভিযোগ উঠেছে কুমিল্লার লালমাই উপজেলার ভুলইন উত্তর ইউনিয়নের বেতাগাঁঁও ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে। কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই গত ১৫ মে থেকে তিনি মাদরাসায় অনুপস্থিত রয়েছেন। কবে দেশে ফিরবেন তাও জানা নেই কারও। এতে মাদ্রাসাটির শিক্ষা কার্যক্রম ভেঙে পড়েছে। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতির ছত্রছায়ায় ২০১৭ সাল থেকে প্রতিবছর তিনি ছুটি ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণ করে যাচ্ছেন। প্রতিবছরের মতো এবছরও বাণিজ্যিকভাবে ৪০ জনের একটি হজ্ব কাফেলার নেতৃত্ব দিতে তিনি বর্তমানে সৌদিতে অবস্থান করছেন বলে মাদরাসার একাধিক শিক্ষক জানিয়েছেন।
মঙ্গলবার (১১ জুন) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আরবি প্রভাষক মাওলানা দেলোয়ার হোসেন ছাড়া অন্য সকল শিক্ষক মাদরাসায় উপস্থিত রয়েছেন। অধ্যক্ষসহ অন্যান্য শিক্ষকরা পাঠদানে ব্যস্ত। আলিম প্রথম বর্ষের তৃতীয় ক্লাসে আকাঈদ ফিকহ বিষয়ে পাঠদানের কথা ছিল আরবি প্রভাষক মাওলানা মো: দেলোয়ার হোসেনের। তাঁর অনুপস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের পড়াচ্ছেন অন্য আরবি প্রভাষক মাওলানা এ এম কামরুল বারী। মাদরাসার হাজিরা খাতায় গত ১৫ মে থেকে প্রভাষক দেলোয়ার হোসেনের স্বাক্ষরের স্থানটি খালি রয়েছে। স্বাক্ষরের স্থানটি খালি কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে মাদরাসার অধ্যক্ষ অনুপস্থিত প্রভাষকের স্বাক্ষরের স্থানে তাৎক্ষনিক ইংরেজিতে এবি লিখে দেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাদরাসার একজন শিক্ষক বলেন, মাওলানা দেলোয়ার হোসেন হজ্ব ও ওমরার ব্যবসা করেন। মুয়াল্লিম হিসেবে প্রতি বছর রমজানে ওমরা ও জিলহজ্ব মাসে হজ্ব কাফেলা নিয়ে তিনি সৌদি যান। ফিরে এসে আয়ের একটি অংশ কমিটির নেতাদের দিলে ছুটি অনুমোদন হয়ে যায়। প্রতিবার টাকা দিয়ে ম্যানেজ করার দায়িত্ব নেন মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি, এবারও অনেককে টাকা দিয়ে এবিষয়ে মুখ না খুলতে বলেন সভাপতি। অন্যান্য বছরের ন্যায় এবছরও তিনি ছুটি ছাড়াই ৪০ জনের একটি কাফেলা নিয়ে হজ্বে গেছেন।
বেতাগাঁঁও ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মো: মীর আহাম্মদ বলেন, গত ১৫ মে থেকে আরবি প্রভাষক মো: দেলোয়ার হোসেন সাহেব কাউকে কিছু না বলে মাদরাসায় অনুপস্থিত রয়েছেন। তিনি ছুটির জন্য কোন আবেদন করেননি। তার মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে।
বেতাগাঁঁও ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার গর্ভনিং বডির সভাপতি আবদুল মতিন মোল্লা বলেন, শুনেছি আরবি প্রভাষক মাওলানা দেলোয়ার হোসেন হজ্বে গেছেন। ফিরে আসলে জানতে চাইবো ছুটি ছাড়া কিভাবে গেলেন? এর আগেও তিনি ছুটি ছাড়া একাধিকবার হজ্ব ও ওমরা করতে সৌদি গিয়েছিলেন।
লালমাই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদুল্লাহ বলেন, আমাকে বিষয়টা কেউ জানায়নি। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিবো।
উল্লেখ্য মাওলানা মো: দেলোয়ার হোসেন ২০১৩ সালের ৪ মে বেতাগাঁঁও ইসলামিয়া আলিম মাদরাসায় আরবি প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি হজ্ব কাফেলাসহ বিভিন্ন ব্যবসা বাণিজ্যে জড়িয়ে পড়েন।













সর্বশেষ সংবাদ
রাজাকারদের ভূমিকা সম্পর্কে এরা জানে?
কুমিল্লায় জোড়া খুনের মামলায় ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড
কুবিতে এক দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল
কুবিতে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল
কোটা আন্দোলন: নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাবির হলে থাকবেন শিক্ষকরা
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
আমার বাসার কাজের লোক ৪০০ কোটি টাকার মালিক
লাইসেন্সবিহীন হাসপাতালে ভূয়া বিল, ভুয়া ডাক্তার
জুন মাসে ৬ খুন কুমিল্লায়
উপজেলা পরিষদ এসোসিয়েশন কুমিল্লার নতুন কমিটি
কুমিল্লায় উল্টো রথযাত্রা
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft