মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
১ শ্রাবণ ১৪৩১
হাঙ্গেরিকে হারিয়ে সুইজারল্যান্ডের শুভসূচনা
প্রকাশ: রোববার, ১৬ জুন, ২০২৪, ১২:০৭ এএম |




 

চমৎকার ফুটবলে প্রথমার্ধে দুই গোল করে জয়ের ভিত গড়ল সুইজারল্যান্ড। এই সময়ে বিবর্ণ হাঙ্গেরি দ্বিতীয়ার্ধে তুলনামূলক ভালো খেলল। ব্যবধান কমিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাসও দিল তারা। তবে শেষ রক্ষা হলো না, বরং শেষ সময়ে তারা গোল হজম করল আরেকটি। দারুণ জয়ে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে শুভসূচনা করল সুইসরা।
কোলনে শনিবার ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে সুইজারল্যান্ড।
দলের জয়ে দারুণ অবদান রাখেন মিচেল এবিশার। তার অ্যাসিস্ট থেকে শুরুতে দলকে এগিয়ে নেন দুয়া। বিরতির আগে এবিশার নিজে দুর্দান্ত গোলে বাড়ান ব্যবধান। বার্নাবাস ভার্গা ব্যবধান কমানোর পর সুইজারল্যান্ডের তৃতীয় গোলটি করেন ব্রিল এমবোলো।
তবে, মাঝমাঠ নিয়ন্ত্রণে এবং আক্রমণ গড়ে দেওয়ায় দারুণ ভূমিকা রেখে ম্যাচ সেরা হয়েছেন গ্রানিত জাকা। পুরোটা সময় খেলে তার দেওয়া পাসগুলোর ৯০ শতাংশ খুঁজে পায় সতীর্থদের।
গত শতাব্দীর পঞ্চাশের দশকে ফুটবল বিশ্ব শাসন করা হাঙ্গেরি নিজেদের সোনালি সময় হারিয়ে ফেলেছে অনেক বছর আগেই। অবশ্য এবার ইউরোর বাছাইয়ে অপরাজিত থেকে (৫ জয়, ৩ ড্র) মূল পর্বে ভালো কিছুর ইঙ্গিত দেয় মার্কো রস্সির দল। তবে শুরুটা সুখকর হলো না তাদের জন্য।
সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ ১০ দেখায় ৭টিতেই হাঙ্গেরি হারল। সুইসদের বিপক্ষে তাদের সবশেষ জয় সেই ১৯৯৮ সালে, প্রীতি ম্যাচে।
ম্যাচ শুরু হতেই একটি রেকর্ডে নাম লেখান হাঙ্গেরির অধিনায়ক দমিনিক সোবোসলাই। পুরুষদের ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী অধিনায়ক এখন লিভারপুলের এই মিডফিল্ডার (২৩ বছর ৭ মাস ২১ দিন)।
৮৬ বছরের মধ্যে প্রথমবার বড় টুর্নামেন্টে এই দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে দ্বাদশ মিনিটে গোলের জন্য প্রথম শটেই সাফল্য পায় সুইজারল্যান্ড। সতীর্থের থ্রু বল বক্সে পেয়ে প্রথম স্পর্শে এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে জাল খুঁজে নেন দুয়া। শুরুতে অফসাইডের বাঁশি বাজলেও ভিএআরে পাল্টায়সিদ্ধান্ত।
১১ দিন আগে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয় ২৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের। দ্বিতীয় ম্যাচেই পেয়ে গেলেন প্রথম গোলের দেখা।
২০তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুবর্ণ সুযোগ পান রুবেন ভার্গাস। তবে বক্সে ঢুকে তার নেওয়া শট ব্যর্থ করে দেন গোলরক্ষক পেতার গুলাসি।
গত ইউরোর কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলা সুইজারল্যান্ড আক্রমণে আধিপত্য ধরে রেখে প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করে। রেমো ফ্রয়লারের পাস বক্সের বাইরে পেয়ে একটু জায়গা বানিয়ে নিয়ে ডান পায়ের জোরাল শটে লক্ষ্যভেদ করেন এবিশার।
সুইজারল্যান্ডের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোর একম্যাচে গোল ও অ্যাসিস্ট করার কীর্তি গড়লেন ২৭ বছর বয়সী এবিশার।
নিজেদের আগের তিনটি ইউরো (১৯৭২, ২০১৬, ২০২০) মিলিয়ে ৯ ম্যাচের মাত্র একটি জেতা হাঙ্গেরি প্রথমার্ধে উল্লেখযোগ্য সুযোগ তৈরি করতে পারে মাত্র একটি। তবে কাছ থেকে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি ডিফেন্ডার উইলি অর্বান।
৫৪তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়তে পারত। ভার্গাসের নিচু শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন গুলাসি।
৬৩তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পান ভার্গা। সতীর্থের ক্রসে তার হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। তিন মিনিট পর ঠিকই গোলের দেখা পান তিনি। সোবোসলাইয়ের ক্রসে কাছ থেকে হেডে ব্যবধান কমান ২৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড।
এরপর আরও কয়েকটি সুযোগ পায় হাঙ্গেরি। তবে কাজে লাগাতে পারেনি। পাঁচ মিনিট যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে ব্যবধান বাড়িয়ে জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন এমবোলো। সুইস গোলরক্ষকের উঁচু করা বাড়ানো বল হেডে ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় হাঙ্গেরি ডিফেন্ডার। বুক দিয়ে বল নামিয়ে বক্সে ঢুকে আগুয়ান গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ৭৪তম মিনিটে ভার্গাসের বদলি নামা এমবোলো।
এসিএল চোটে প্রায় ২৩০ দিন বাইরে থাকার পর সদ্য শেষ হওয়া ক্লাব মৌসুমে মোনাকোর হয়ে লিগে কেবল ৫টি ম্যাচ খেলতে পারেন ২৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। ইউরোতে বদলি নেমেই তিনি পেলেন গোলের দেখা।












সর্বশেষ সংবাদ
রাজাকারদের ভূমিকা সম্পর্কে এরা জানে?
কুমিল্লায় জোড়া খুনের মামলায় ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড
কুবিতে এক দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল
কুবিতে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল
কোটা আন্দোলন: নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাবির হলে থাকবেন শিক্ষকরা
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
আমার বাসার কাজের লোক ৪০০ কোটি টাকার মালিক
জুন মাসে ৬ খুন কুমিল্লায়
লাইসেন্সবিহীন হাসপাতালে ভূয়া বিল, ভুয়া ডাক্তার
উপজেলা পরিষদ এসোসিয়েশন কুমিল্লার নতুন কমিটি
কুমিল্লায় উল্টো রথযাত্রা
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft