সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪
৩১ আষাঢ় ১৪৩১
নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই, ২০২৪, ১:০৮ এএম |

নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস
পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়টি দুরারোগ্য ব্যাধির মতো জেঁকে বসেছে। শুধু যে সরকারি কর্ম কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটছে তা নয়। প্রাথমিকের সমাপনী পরীক্ষা থেকে শুরু করে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা, এমনকি বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগও আছে। কিছু সংঘবদ্ধ চক্র প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনার সঙ্গে জড়িত।
গত কয়েক বছরে প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে অনেককে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। সরকারের নানা উদ্যোগ সত্ত্বেও প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকানো যায়নি। পাবলিক পরীক্ষা থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, চাকরিতে নিয়োগ পরীক্ষা, এমনকি পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষাসহ প্রায় সব পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস যেন নিয়মিত ঘটনায় পরিণত হয়েছে।
গত রবিবার দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনে ‘বিসিএস প্রিলি লিখিতসহ গুরুত্বপূর্ণ ৩০ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, এক যুগের বেশি সময় ধরে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস করে আসছে একটি চক্র।
প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বিসিএসসহ ৩০টি ক্যাডার ও নন-ক্যাডার পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস করা হয়েছে। এতে পিএসসির কয়েকজন কর্মকর্তা জড়িত। সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের (বিসিএস) পরীক্ষাসহ ৩০টি নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তার ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরো সাত থেকে আটজনকে আসামি করে একটি মামলা করা হয়। সরকারি কর্ম কমিশন আইনে দায়ের করা মামলার তদন্তও করবে সিআইডি। অন্যদিকে প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনের বিষয়ে তদন্ত করতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে সরকারি কর্ম কমিশন।
প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা আমাদের সমাজে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এটাও একটা বড় দুর্নীতি।
গত সোমবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, দুর্নীতিবাজকে বর্জন করা না হলে কখনোই দুর্নীতির গভীর ক্ষত সেরে উঠবে না। উন্নয়নের সুফলগুলো দুর্নীতির চোরাবালিতে তলিয়ে যাচ্ছে।
এটা তো অস্বীকার করার উপায় নেই, যে বা যারা প্রশ্ন ফাঁসের মতো জঘন্য ও নিন্দনীয় একটি কাজের সঙ্গে জড়িত, তারা প্রকৃতপক্ষে দেশ এবং জাতির শত্রু। তাদের নীতি-নৈতিকতা বলে কিছু নেই। শুধু অর্থের বিনিময়ে তারা যা খুশি তা-ই করতে পারে।
বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন আইন আছে। যেখানে প্রশ্ন ফাঁস সম্পর্কে বিলে বলা হয়েছে, ‘পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে পরীক্ষার জন্য প্রণীত কোনো প্রশ্নসংবলিত কাগজ বা তথ্য, পরীক্ষার জন্য প্রণীত হয়েছে বলে মিথ্যা ধারণাদায়ক কোনো প্রশ্নসংবলিত কাগজ বা তথ্য অথবা পরীক্ষার জন্য প্রণীত প্রশ্নের সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে বলে বিবেচিত হওয়ার অভিপ্রায়ে কোনো প্রশ্নসংবলিত কাগজ বা তথ্য যেকোনো উপায়ে ফাঁস, প্রকাশ বা বিতরণ করা দ-নীয় অপরাধ হিসাবে বিবেচিত হবে। এর শাস্তি সর্বোচ্চ ১০ বছরের কারাদ- ও অর্থদ-। এই অপরাধ আমলযোগ্য ও অজামিনযোগ্য হবে।’ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) পরিচালিত কোনো পরীক্ষায় ভুয়া পরিচয়ে অংশ নিলে দুই বছরের কারাদ-ের বিধান আছে। অর্থাৎ প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা প্রতিরোধে দেশে আইন আছে; কিন্তু আইনের প্রয়োগ নেই।
প্রশ্ন ফাঁস দ-নীয় অপরাধ। এই অপরাধ প্রতিরোধের সহজ উপায় হচ্ছে অপরাধীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করা। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে আরো কঠোর হতে হবে। এই চক্রের সবাইকে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হোক। নিশ্চিত করা হোক উপযুক্ত শাস্তি।












সর্বশেষ সংবাদ
আমার বাসার কাজের লোক ৪০০ কোটি টাকার মালিক
কুবি শিক্ষার্থীদের গণপদযাত্রা ও স্মারক লিপি প্রদান
ব্রাহ্মণপাড়ায় পৃথক অভিযানে ৩ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার
ফাঁস হওয়া প্রশ্নে যারা চাকরিতে, তাদেরও ধরা উচিত: প্রধানমন্ত্রী
মহানগর ছাত্রলীগ ‘শান্তি সমাবেশ’
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
কুমিল্লা নগরীতে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখম
ভাত খেতে চাওয়ায় শিশুকে মেরে ফেললেন সৎ মা!
কুমিল্লায় বৃক্ষমেলা উদ্বোধন আজ
পুলিশ সুপারের কাছে চাওয়া
কোটা আন্দোলন নতুন কর্মসূচি ঘোষণা
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft