শনিবার ২৫ মে ২০২৪
১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
বিচারপ্রার্থীদের প্রসঙ্গে প্রধান বিচারপতি
‘প্রমাণ-অপ্রমাণের যাত্রা সুদীর্ঘ, সেখানে জড়িয়ে আছে হাহাকার’
প্রকাশ: বুধবার, ৮ মে, ২০২৪, ১:১৪ এএম |


প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেছেন, আমাদের দেশে আদালতে কোনও কিছু প্রমাণ ও অপ্রমাণের যে যাত্রা তা অনেক ক্ষেত্রেই সুদীর্ঘ। এই যাত্রাপথে কত মানুষের দীর্ঘশ্বাস, হাহাকার জড়িয়ে রয়েছে তা আমরা অনেকেই হয়তো হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে পারি না।
মঙ্গলবার (৭ মে) সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে ‘প্রমাণিত- অপ্রমাণিত: আইনের সহজ পাঠ’-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন।
'প্রমাণিত: অপ্রমাণিত-আইনের সহজ পাঠ’ অনুষ্ঠানটি বিচারপ্রার্থী মানুষের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে। এর ফলে বিচারপ্রার্থী মানুষেরা কী করলে ন্যায়বিচার পাবেন সেটি তুলে ধরা হয়েছে। অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ টেলিভিশনে ধারাবাহিকভাবে প্রচার করা হবে। লিগ্যাল এইডের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা ও পরিচালনা করেছেন আপিল বিভাগ থেকে অবসর নেওয়া বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ।
প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেন, ‘আইন সহজ একটি বিষয়, কোনও বিচারেই এমনটি দাবি করা যাবে না। এমনকি আমরা যারা আইন জগতের মানুষ, সারাজীবন আইনের বইপত্র-সাময়িকী কিংবা মামলার নথিতেই যাদের জীবন কেটে যাচ্ছে, তাদের কাছেও আইন প্রায়শই দুর্বোধ্য হয়ে ধরা দেয়। দেশের সাধারণ মানুষের মাঝে আইনের বিভিন্ন দিক সহজবোধ্য করে তুলে ধরার কঠিন কাজটি যিনি নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন, আজকের এই সৃষ্টিশীল কর্মের যিনি মূল রূপকার, বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথকে আন্তরিক ধন্যবাদ।’
তিনি আরও বলেন, ‘আপাতদৃষ্টিতে প্রমাণিত-অপ্রমাণিত সাধারণ দু'টো শব্দ মনে হলেও, আইনের জগতে এই শব্দ দু'টি নানা মাত্রায় আমাদের কাছে ধরা দেয়। আমাদের দেশে আদালতে কোনও কিছু প্রমাণ ও অপ্রমাণের যে যাত্রা তা অনেক ক্ষেত্রেই সুদীর্ঘ। এই যাত্রাপথে কত মানুষের দীর্ঘশ্বাস, হাহাকার জড়িয়ে রয়েছে তা আমরা অনেকেই হয়তো হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে পারি না।’
প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেন, ‘দেশের মাত্র ২ হাজার বিচারক ৪০ লাখেরও বেশি মামলা নিষ্পত্তির কঠিন দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন, তবুও মামলাজট থেকে আমরা পরিত্রাণ পাচ্ছি না। অনেক ক্ষেত্রেই একটি মামলা চূড়ান্তভাবে পারি না। অনেক ক্ষেত্রেই একটি মামলা নিষ্পত্তি হতে দশ-বারো বছর লেগে যায়।’
প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আবার একথাও সত্যি, আদালতে এমন অনেক বিষয় নিয়ে মামলা-মোকদ্দমা হয় যা হয়তো মামলা পর্যন্ত গড়াতোই না।
সরকার বিগত এক দশকে বিচার কার্যক্রমকে গতিশীল করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, লিগ্যাল এইড কার্যক্রমকে তৃণমূল পর্যায়ে কার্যকর করার মাধ্যমে এদেশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আইনের আশ্রয় লাভের সাংবিধানিক অধিকার আরও সহজতর হয়েছে।
উন্নত রাষ্ট্রে বিভিন্ন জনপ্রিয় লিগ্যাল টিভি শো’র উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, রিয়ালিটি শো রয়েছে যার মাধ্যমে বিভিন্ন আইনগত সমস্যা বা বিরোধ নিষ্পত্তি প্রক্রিয়া প্রদর্শনের মাধ্যমে জনগণের মাঝে আইনগত সচেতনতা তৈরি করা হয়।
ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে আমরা এখন স্মার্ট বাংলাদেশের পথে যাত্রা শুরু করেছি উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘এই যাত্রা তখনই সফল হবে যখন আমরা ধর্ম-বর্ণ-শ্রেণি নির্বিশেষে সকলের জন্য এক্সেস টু জাস্টিস নিশ্চিত করতে পারবো। এছাড়া, আইনি প্রক্রিয়ায় সকলের অভিগম্যতা ছাড়া 'সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল' অর্জন অসম্ভব একটি ব্যাপার। তাই এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আমাদের প্রত্যেককেই যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে।’
আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, বর্তমান সরকার সকল নাগরিকের আইনের সমান আশ্রয় ও ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিনা খরচে আইনি সেবা পাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে।
তিনি বলেন, বিটিভিতে যে অনুষ্ঠানটি শুরু হতে যাচ্ছে-তার ফলে ভুক্তভোগী মানুষ আইনের প্রায়োগিক, মৌলিক চাহিদা জানার মাধ্যমে সঠিক সময়ে অপরাধের প্রতিকার চাইতে পারবেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য দেন-অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান বিচারপতি নাইমা হায়দার, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম।  













সর্বশেষ সংবাদ
কুমিল্লায় চাঁদাবাজির অভিযোগে ৯ মামলার আসামি অপু গ্রেফতার
সিম কার্ড কে আবিষ্কার করেছেন?
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু রোববার
যৌতুক না দেয়ায় সন্তানসহ স্ত্রীকে তাড়িয়ে দিলেন স্বামী!
আমরা দুজনই বেহায়া, জয়কে জায়েদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
আলোচনায় বসতে শিক্ষক সমিতিকে চিঠি দিলো কুবি প্রশাসন
আনার হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন এক কসাই
গায়ে হলুদ শেষে নদীতে গোসলে নেমে বর নিখোঁজ
কৃতী সন্তানদের ভালোভাবে সম্মান করতে হবে
সাবেক আইজিপি, সেনাপ্রধান, কাউকে বাঁচাতে যাবে না সরকার: কাদের
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft