সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪
৯ বৈশাখ ১৪৩১
ব্রাহ্মণপাড়ায় পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষায় অসহায় পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
ইসমাইল নয়ন।।
প্রকাশ: সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০২৪, ১২:৪৫ এএম |



কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় দুলালপুর ইউনিয়নের গোপালনগর কোরেরপুল সাবেক খোদেজা মহিলা মেম্বারের বাড়িতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক বাড়িঘর নির্মাণ করার অভিযোগে পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষায় সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম। তিনি সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে বলেন, আমাদের পাশাপাশি বাড়ির মৃত আলফাজ আলীর ছেলে আওয়াল মিয়া, ছাদেক মিয়া, সাখাওয়াত মিয়া, মোশাররফ হোসেন গংদের সাথে আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে কুমিল্লা বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা চলমান রয়েছে। মামলা থাকার প্রেক্ষিতে আওয়াল ও মোশারফ হোসেন গংরা কিছুদিন পর পর ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করার পায়তারা চালাচ্ছিলো। পরে আমি বাদী হয়ে কুমিল্লা বিজ্ঞ আদালতে ১৪৫ ধারায় মামলা দায়ের করি। মামলার প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালত উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি কাছে বিষয়টি তদন্ত করার জন্য পাঠায়। এছাড়া ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশকে আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তিটি স্থিতি অবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেন। কিন্তু গত কয়েকদিন যাবৎ মৃত আলফাজ আলীর ৯ ছেলে ইন্দনে ও ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা আমাদের উপর হামলা, ভয়ভীতিসহ তারা জোরপূর্বক আমাদের জায়গায় একটি ঘর নির্মাণ করে। আমি উপায়ন্তর না পেয়ে একইদিন ২৩ মার্চ শনিবার বিকালে আমার নিজ বাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে  আরো উল্লেখ করেন মৃত আব্দুস সামাদ ও মৃত আলফাজ আলী সম্পর্কে চাচা ভাতিজা। আব্দুস সামাদ ও আলফাজ আলীর আরএস খতিয়ান নং ২৭৬, সাবেক দাগ নং ১২৩৪, হাল জরিপে ৩৮১২ এর ৭০ শতক অন্ধরে ৩৫ শতক ভূমি আমরা পাই। এই দাগ থেকে আমার ভাই শফিকুল ইসলাম ৬ শতক এবং আমি একই  দাগ থেকে সারে ৪ শতক জায়গা তাদের নিকট বিক্রি করি। কিন্তু তারা উক্ত ক্রয়কৃত সম্পত্তি দখল করার পরও আমার ভাই শফিকুল ইসলামের ৬ শতক জায়গায় কয়েকদিন পর পর নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জায়গা দখল, গাছ লাগানোসহ বিভিন্ন হুমকি-ধমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন। শনিবার ভোর রাতে আদালতের আদেশ অমান্য করে বিবাদী মোশারফ হোসেন, আওয়াল মিয়া, আয়াত আলীর ছেলে জহিরুল ইসলাম তার ভাই জীবন মিয়া গংসহ ১৫/২০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র প্রদর্শন করে একটি টিনশেড ঘর তৈরী করে। ঘর তৈরীর কিছুদিন আগে আওয়াল ও মোশারফ হোসেন গংরা আমাদের জায়গায় গাছ লাগাতে গেলে আমি তাদেরকে বাধা দেই। তখন তারা আমার ও আমার পরিবারের লোকজনের উপর দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। পরে বিবাদীরা আমাদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণপাড়া থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগ দাখিল করে। পরে আমি বাদী হয়ে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি অভিযোগ দাখিল করি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার স.ম. আজহারুল ইসলাম বিষয়টি তদন্ত করারর জন্য ব্রাহ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম আতিক উল্ল্যাহ এর নিকট প্রেরণ করে। এছাড়াও আমার বাবা মৃত আব্দুস সামাদ ও আব্দুল আওয়াল ও মোশারফ গংদের পিতা মৃত আলফাজ আলীর বাড়িটি মোট ৩২ শতকের মধ্যে অবস্থিত। আমার বাবা ৩২ শতকের অন্ধরে ১৬ শতক পায়। কিন্তু বিবাদীগন আওয়াল মিয়া ও মোশারফ গংরা জোরপূর্বক ৩টি পাকা বিল্ডিং নির্মান করে। তখন আমরা বাধা দিলে আমাদের উপর হামলা চালায় এবং আমাদের বাড়ির আসা-যাওয়ার রাস্তা ব্যাঘাত সৃষ্টি করে। এই নিয়ে এলাকার সাহেব সর্দাররা কয়েক দফা বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে চাইলেও তারা মানেননি। বর্তমানে বিবাদীগনরা ১৬ শতক জায়গার মধ্যে ২২ শতক জায়গা দখল করে রেখেছে। বর্তমানে আমরা ১০ শতকের মধ্যে মানবেতর জীবনযাপন করছি। এই ৩২ শতক জায়গার মধ্যেও ১৬ শতক জায়গা বুঝিয়া পাবার জন্য বিজ্ঞ আদালতে দেওয়ানী মামলা চলমান আছে। যার মামলা নং ৬০০। বিবাদীগনের হুমকি-ধমকি ও ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের কারণে আমরা পালিয়ে বেড়াচ্ছি। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সঠিক তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিলে আমরা পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষায় প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।













সর্বশেষ সংবাদ
৪ মে থেকে বাড়ছে ট্রেনের ভাড়া
ঢাবির সুইমিং পুলে নেমে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
বৃষ্টির প্রার্থনায় চোখের পানি ঝরালো মুসল্লিরা
৯ বছর পর ওমরাহ পালনে সৌদি যাচ্ছে ইরানিরা
কুমিল্লা মেডিকেলে শিশু ওয়ার্ডে ধারণ ক্ষমতার ৩ গুন রোগী
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়তে পারে:স্বাস্থ্যমন্ত্রী
দাম কমানোর ২৪ ঘণ্টা ব্যবধানে ফের বাড়ল স্বর্ণের দাম
সদরে তিন পদেই একক প্রার্থী
বাড়ির পাশের গাব গাছে মিলল শ্রমিক লীগ নেতার ঝুলন্ত মরদেহ
প্রশ্ন করাই সাংবাদিকতা
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft