মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১৫ ফাল্গুন ১৪৩০
বইমেলার প্রথম শুক্রবারেই ভিড় ভালো বিক্রির ‘আভাস’
প্রকাশ: শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২:১৬ এএম |




মাসব্যাপী ‘অমর একুশে বইমেলা-২০২৪’-এর শুরুর প্রথম দিনটি কেটেছে অব্যবস্থাপনায়। অনেক স্টলসহ মেলার বিভিন্ন অংশ ছিল বেশ অগোছালো। তারওপর সন্ধ্যায় বাগড়া দিয়েছে বৃষ্টি। সবমিলিয়ে শুরু হয়েও যেন শুরু হয়ে ওঠেনি বইমেলা। আজ শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) ছিল মেলার দ্বিতীয় দিন, আর প্রথম ছুটির দিন। যদিও সকালের দিকে গতকালের রেশ ছিলই। তবে দুপুরের পর থেকেই বাড়তে শুরু করে লোকসমাগম। এক পর্যায়ে দর্শনার্থীদের বেশ ভিড়ও দেখা গেছে মেলায়। মেলার দ্বিতীয় দিনেই এমন চিত্র দেখে এ বছর বইমেলা বেশ জমে উঠবে বলে ধারণা করছেন বিক্রেতারা।
বইমেলার দ্বিতীয় দিনের সকালটা ছিল শিশুদের জন্য। আয়োজক বাংলা একাডেমির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় আজ সকালে বইমেলার শিশু চত্বরে আয়োজন করা হয় শিশুপ্রহর। সকাল সাড়ে ১১টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শিশু চত্বরে ‘শিশুপ্রহর’ উদ্বোধন করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। এসময় বিশেষ আয়োজনে জনপ্রিয় শিক্ষামূলক টেলিভিশন ধারাবাহিক সিসিমপুরের হালুম, টুকটুকি, ইকরি, শিকুর সঙ্গে নাচে-গানে মেতে ওঠে শিশুরা।
সিসিমপুরের স্টল ঘিরে শিশুদের কিছুটা ভিড় থাকলেও বিকাল পর্যন্ত মেলা ছিল বেশ ফাঁকা। তবে বিকাল হতেই বাড়তে থাকে বইপ্রেমীদের ভিড়। প্রিয়জনদের সঙ্গে মেলায় এসে উৎসুক চোখে নতুন বইয়ের পাতা উল্টিয়ে দেখছেন কেউ। আবার কেউ কেউ বই ও লেখকদের সঙ্গে তুলছেন ছবি। কেউ আবার মেতে উঠেছেন আড্ডায়।
দ্বিতীয় দিনেই এমন দর্শনার্থীর আগমনে বিক্রি বাড়ার বার্তা হিসেবে দেখছেন বিক্রেতারা। তারা বলছেন, দ্বিতীয় দিনেই লোকসমাগম হচ্ছে, এটা ভালো দিক। মেলার প্রথম দিকে আসলে বিক্রি তেমন একটা হয় না। সবাই এসে উল্টেপাল্টে বই দেখেন। অনেকেই লিস্ট তৈরি করেন। মেলার শেষের দিকে এসে লিস্ট অনুযায়ী বই কিনে নিয়ে যান। সেই তুলনায় এবার দ্বিতীয় দিনেই বেচাকেনাও হয়েছে।
আগামী প্রকাশের বিক্রয়কর্মী সোহাগ বলেন, ‘গতকাল লোকজন একদমই ছিল না। মেলাও পুরোপুরি শুরু করতে পারেনি অনেকেই। আজ সকাল থেকে যারা এসেছেন তাদের অনেকেই শিক্ষার্থী। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সব বয়সের দর্শনার্থী বেড়েছে। গতকাল বিক্রিও ছিল না বললেই চলে। আজ দর্শনার্থী বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিক্রিও বেড়েছে। আজকে মোটামুটি ব্যস্ত সময় পার করছি বলা যায়।’ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এই ব্যস্ততা আরও বাড়বে বলেই মনে করছেন এই তরুণ।
ভাষা চিত্রের বিক্রয়কর্মী রওশন আলম বলেন, ‘আজ দর্শনার্থী অনেক বেড়েছে। আজকের তুলনায় গতকাল দর্শনার্থী পাঁচ শতাংশও ছিল না। তারওপর আবার বৃষ্টিও ছিল। আজকে দর্শক বেড়েছে, তবে বিক্রি তুলনামূলক কম। যদিও একেবারের শুরুর দিক। তাই প্রত্যাশা করছি, বিক্রি বাড়বে। আর প্রথম দিকে সবাই এসে ঘোরাঘুরিই করে।’
বিক্রয়কর্মীদের কথার মিল পাওয়া গেলো দর্শনার্থী নুসাইবা রহমানের কথাতেও। কেমন লাগছে জানতে চাইলে নুসাইবা বলেন, ‘মেলায় বন্ধু-বান্ধবরা মিলে ঘুরতে এসেছি, গতকালও এসেছিলাম। প্রথম দিকে ঘুরে ঘুরে বই দেখছি, ভালো লাগলে লিস্ট করছি। বইকেনার জন্য বাজেট কতটুকু পাওয়া যাবে, সবকিছু চিন্তা করে এই লিস্ট আবার কাট-ছাঁট হবে। শেষ দিকে এসে বই কিনবো। প্রথম দিকে ঘোরাঘুরি, আড্ডা দিতেই ভালো লাগে।’
আগে থেকেই বলা হচ্ছিল, এবারের বইমেলায় নতুন মাত্রা যোগ করবে শহরের নতুন গণপরিবহন মেট্রোরেল। তবে শুক্রবার মেট্রোরেল সাপ্তাহিক বন্ধ ছিল। তারপরও লোকসমাগম সন্তোষজনক, মেট্রোরেল চালু থাকলে তা আরও বাড়বে বলেই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।













সর্বশেষ সংবাদ
কুমিল্লা বাঁচাতে ১২ দফা দাবি মনিরুল হক চৌধুরীর
প্রচারণায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
‘হামলা’ ও হেনস্থার বিচার দাবি কুবি শিক্ষক সমিতির
পঙ্কজ উদাসের চিরবিদায়
ফাইনালে কুমিল্লা
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
প্রচারণায় সরগরম কুমিল্লা নগরী
প্রচারণায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
হত্যা ও আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় পৃথক দুই মামলা
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের বিরুদ্ধে গরু লুটের মামলা
নিখোঁজের চারদিন পর মাছের ঘেরে ভাসল শিশুর লাশ
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft