বুধবার ২২ মার্চ ২০২৩
৮ চৈত্র ১৪২৯
কুমিল্লা-ব্রাহ্মণপাড়া-মিরপুর সড়ক অতিরিক্ত স্পিড ব্রেকারে দুর্ভোগে যাত্রীরা
প্রকাশ: রোববার, ১২ মার্চ, ২০২৩, ১২:১৩ এএম |



ইসমাইল নয়ন।। কুমিল্লা জেলার একটি ব্যস্ততম সড়ক কুমিল্লা-ব্রাহ্মণপাড়া-মিরপুর সড়ক। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার লোকের যাতায়াত। অফিস-আদালত, স্কুল-কলেজ, ব্যবসায়ী, ব্যাংকসহ বিভিন্ন অফিস ও দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীরা প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করে। মাত্র ২১ কিলোমিটার রাস্তায় ৩৩ টি স্পিড ব্রেকার, যা যাত্রীদের দূর্ভোগে পরিণত হয়েছে। সাধারণত সড়কে দুর্ঘটনা কমাতে সড়ক মহাসড়কে স্পিড ব্রেকার দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে কোন রকম নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে অপরিকল্পিতভাবে স্পিড ব্রেকার তৈরি করায় এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এরই মধ্যে ব্যক্তি উদ্যোগে যত্রতত্র স্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য স্পিড ব্রেকার। যার কারণে উপকারের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হচ্ছে। স্পিড ব্রেকারগুলোর আগে পরে নেই কোন প্রতিকী চিহ্ন, লেখা নেই কোন সতর্কবানী। এমনকি রং দিয়ে চিহ্নিত করা হয়নি ওই স্পিড ব্রেকারগুলো। সরেজমিনে দেখা গেছে, কুমিল্লা শাসনগাছা থেকে ব্রাহ্মণপাড়া সিএনজি স্ট্যান্ড পর্যন্ত ২১ কিলোমিটার রাস্তায় রয়েছে ৩৩ টি (গতিরোধক) স্পিড ব্রেকার। কিছু কিছু স্পিড ব্রেকার এতো উঁচু যে, এগুলোর উপর দিয়ে গাড়ি চালানোর সময় বেশ জোরে ঝাঁকুনির সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে প্রায়ই ড্রাইভারদের সাথে যাত্রীদের কথা কাটাকাটি ও বাক-বিতন্ডার সৃষ্টি হচ্ছে। এই রাস্তায় যাতায়াতকারী রোগী ও শিশুরা ঝাঁকুনিতে প্রায় অসুস্থ হয়ে পড়ছে। সড়কের পাশে কেউ নতুন বাড়ি নির্মাণ করলে সেখানে দেয়া হয় একটি স্পিড ব্রেকার। আর হাট-বাজার, দোকান থেকে শুরু করে চা দোকানের সামনে অবাধে স্পিড ব্রেকার নির্মাণ করায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। অনেক সময় বিভিন্ন মাহফিল ও মসজিদ নির্মাণের নামে পাকা সড়কের ওপর ইট ও মাটি দিয়ে অস্থায়ীভাবে নির্মাণ করে গাড়ির পথরোধ করার চেষ্টা করছে অসচেতন মহল। উজ্জল চন্দ্র রায় নামের এক মোটরসাইকেল চালক জানান, উঁচু স্পিড ব্রেকারগুলোতে গাড়ির গতি কমিয়ে উঠার চেষ্টা করলে গাড়ি স্পিড ব্রেকারের ওপর উঠতে চায়না। তাই বাধ্য হয়ে জোরে চালিয়ে উঠতে হয়ে। মাঝে মধ্যে ওই স্পিড ব্রেকারগুলোতে উঠতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন মোটরসাইকেল চালকরা। স্থানীয়রা জানান, অপরিকল্পিতভাবে নির্মিত এই স্পিড ব্রেকারগুলোর কারণে সাইকেল, ভ্যান, মোটরসাইকেল চালকরাও সমস্যায় পড়েছেন। প্রতিদিন ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে।
এ ব্যাপারে কুমিল্লা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নিবার্হী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা বলেন, স্পিড ব্রেকার গুলোর একটির ও অনুমতি নেই।এলাকার কিছু উৎসাহী জনগণ মনগড়া মত রাতের আধারে স্পিড বেকার গুলো দিয়েছেন। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি অচিরেই এই অবৈধ স্পিড ব্রেকার গুলো অপসারণ করা হবে। তিনি আরো বলেন আমরা প্রতিনিয়ত শুনতে পাই স্পিড ব্রেকার এর কারণে প্রতিনিয়ত ছোট বড় যানবাহন দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হয়।














সর্বশেষ সংবাদ
চৌদ্দগ্রামকে ভূমিহীন-গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করবেন প্রধানমন্ত্রী
রমজানে ছুটি মাধ্যমিক স্কুল-কলেজ, প্রাথমিকে ক্লাস ১৫ দিন
কুবিতে অনুষ্ঠিত হলো ম্যাথ অলিম্পিয়াড
সোনার দাম কমলো
বিমানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন সাকিব
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সীমানা পরিবর্তনের আবেদন সবচেয়ে বেশি কুমিল্লায়
কমলো হজের খরচ
রমজানে ছুটি মাধ্যমিক স্কুল-কলেজ, প্রাথমিকে ক্লাস ১৫ দিন
বাংলাদেশে ১৪ ঘণ্টা, এবার সবচেয়ে দীর্ঘ সময় রোজা যে দেশে
একই পদ্ধতি অনুসরণে সব মসজিদে তারাবিহ পড়ার আহ্বান
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft