ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
799
তীব্র শীতেও চান্দিনা গরম
Published : Wednesday, 6 January, 2021 at 12:00 AM, Update: 06.01.2021 12:39:19 AM
তীব্র শীতেও চান্দিনা গরমমাসুদ আলম ||
সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৬ জানুয়ারি কুমিল্লার চান্দিনা পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই প্রার্থীদের মধ্যে কোন্দল, পরস্পরবিরোধী বক্তব্য, আচারণবিধি লংঘন, সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় তীব্র শীতের মধ্যেও উত্তাপ বাড়ছে চান্দিনায়।
এদিকে ভোটারদেরও প্রত্যাশা, নিরাপদ ও ভয়-ভীতিহীন পরিবেশে কেন্দ্রে গিয়ে যাতে ভোট দিতে পারেন, সেই পরিবেশ নিশ্চিত করবে প্রশাসন। এ ব্যাপারে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান ভোটাররা।
আবার শান্তিপূর্ণ, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ একটি নির্বাচন চান্দিনা পৌরবাসীকে উপহার দিতে বদ্ধপরিকর প্রশাসনও। যেকোনো প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচারণবিধি লংঘনের অভিযোগ উঠলে দল নয়, ব্যক্তি হিসেবে বিবেচনা করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ^াস দেয় প্রশাসন। ইতোমধ্যে ছোটখাটো আচারণবিধি লংঘনের কয়েকটি ঘটনায়ও কোনো প্রার্থীকে ছাড় দেয়নি প্রশাসন।
চান্দিনা পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের ভোটার আবদুল হক বলেন, তিনি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চান, যাতে নিরাপদ পরিবেশে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন। খলিলুর রহমান নামে আরও এক ভোটার বলেন, জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে যিনি কাজ করবেন, তাকেই ভোট দেবেন।
তবে চান্দিনা পৌর নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য মেয়র ও কাউন্সিলরসহ সকল প্রার্থীর একই কথা হলেও মাঠ পর্যায়ে দেখা গেছে ভিন্নতা। ভোট সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার কথা যিনি সবচেয়ে বেশি বলেন, তিনি হলেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী শওকত হোসেন ভূঁইয়া। অথচ তার সমর্থকদের বিরুদ্ধেই প্রচার-প্রচারণায় বাধা প্রদান, পোস্টার, ব্যানার ও লিফলেট ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ তুলেছেন জগ প্রতীকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী শামীম হোসেন। তিনি বলেন, ‘নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকরা আমার কর্মী সমর্থকদের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে প্রচারণা না চালানোর জন্য। ৮ জানুয়ারির পর আমাকে ও আমার সমর্থকদেরকে হামলা ও মামলা দেওয়ার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ দিয়ে হয়রানির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া বিভিন্নভাবে নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী-কর্মীদের দিয়ে অস্ত্র সংগ্রহ করছে। পরবর্তীতে প্রশাসন চাইলেও তখন পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখতে পারবে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘এতো অভিযোগের পরও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে কোন মনিটরিংয়ে নামছেন না। প্রশাসনের প্রতি আমার দাবি, ভোটারদের ভোটে যিনিই নির্বাচিত হোন, আমার আপত্তি থাকবে না। তবে ভোটাররা যেন ভয়-ভীতিহীন শান্তিপূর্ণভাবে ভোট প্রয়োগ করতে পারেন, সেই পরিবেশ তৈরি করেন।’
নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শওকত হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘আমার সমর্থকদের বিরুদ্ধে জগ প্রতীকের প্রার্থীর তোলা সব অভিযোগ মিথ্যা। শুরু থেকেই প্রশাসনকে অনুরোধ করে আসছি চান্দিনা পৌরসভায় একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য।’     
অন্যদিকে বিএনপির ধানের শীর্ষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থীর অভিযোগ, পৌর নির্বাচনী পরিবেশে এখনও লেভেল প্লেইং ফিল্ড নেই। পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনিও।
এছাড়াও খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পৌর নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দের দিন ৭ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই সংঘর্ষে ৭ জন্য আহত হয়। এসময় এক প্রার্থীর প্রচারণার কাজে ব্যবহৃত সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মাইক ভাংচুর করে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা।
ঘটনার সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনে পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস ছালাম (উটপাখি প্রতীক) মনোয়নপত্র জমা দেন। এসময় পৌর আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক আলী হোসেনও (ডালিম প্রতীক) প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। ২৮ ডিসেম্বর উপজেলা আওয়ামী লীগ ৭ নং ওয়ার্ড থেকে আব্দুস ছালামকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে সমর্থন দেয়। বিদ্রোহী প্রার্থীদেরকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়। ৩০ ডিসেম্বর প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর তাদের সমর্থকরা এলাকায় মিছিল বের করে। মিছিলে আব্দুস ছালামের সমর্থকরা আলী হোসেনের প্রচারণায় হামলা চালিয়েছে এবং দুই পক্ষের সমর্থকদের আহত করার অভিযোগ তোলেন দুই প্রার্থীই।
ডালিম প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আলী হোসেন আরও অভিযোগ করেন, তিনি তার ওয়ার্ডে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারছেন না প্রতিপক্ষ আব্দুস ছালামের সমর্থকের হুমকি ও হামলার ভয়ে। প্রশাসনের কাছে তার দাবি একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন।
অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে উটপাখি প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুস ছালাম বলেন, ‘প্রতীক বরাদ্দের দিন সামান্য একটি উস্কানিমূলক ভাষা ব্যবহার নিয়ে আমার সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ডালিম প্রতীকের প্রার্থীর সাথে আমার কোনো দ্বন্দ্ব নেই। আমার সমর্থকদের বিরুদ্ধে তোলা হুমকি ও হামলার অভিযোগ মিথ্যা।
নির্বাচনের আমেজ, উত্তাপ ও পরিবেশ নিয়ে চান্দিনা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আহসান হাবীব কুমিল্লার কাগজকে বলেন, ‘নির্বাচনের মাঠে আচারণবিধি ঠিক রাখতে কাজ করে যাচ্ছি। তবে ছোটখাটো কিছু ঘটনা ছাড়া নির্বাচনকে ঘিরে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আচারণবিধি লংঘনে আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না। নির্বাচন সুষ্ঠু রাখতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর।’







সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};