ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
145
তদন্ত করে ব্যবস্থা নিন ভিজিএফ কর্মসূচিতে অনিয়ম
Published : Monday, 9 May, 2022 at 12:00 AM
তদন্ত করে ব্যবস্থা নিন ভিজিএফ কর্মসূচিতে অনিয়মভিজিএফ বা ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং একটি মানবিক সহায়তা কর্মসূচি। জাটকা আহরণে বিরত থাকা জেলেদের ভিজিএফ বরাদ্দ দেওয়া হয়।
জাতীয় দৈনিকে সম্প্রতি প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পক্ষিয়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান প্রতিপক্ষ নৌকার সমর্থকদের সরকারি সহায়তার জেলে কার্ড ও ভিজিএফ চাল থেকে বঞ্চিত করেছেন। এর প্রতিবাদে স্থানীয় বাজারে দুই শতাধিক ভুক্তভোগীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মানববন্ধন করেছেন।
মানববন্ধন শেষে চেয়ারম্যানের বিচার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। জেলেদের অভিযোগ, তাঁরা চেয়ারম্যানকে ভোট না দিয়ে নৌকায় ভোট দেওয়ার অপরাধে জেলে কার্ড থাকা সত্ত্বেও তাঁদের চাল না দিয়ে চেয়ারম্যান তাঁর পছন্দের ব্যক্তিদের চাল দিয়েছেন। যাঁদের চাল দেওয়া হয়েছে তাঁদের জেলে কার্ড নেই। সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান যথারীতি এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
অন্যদিকে ঝালকাঠির নলছিটিতে ঈদ উপলক্ষে সরকারের দেওয়া ভিজিএফ কর্মসূচিতে দেওয়া ৯ বস্তা চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগে স্থানীয় চৌকিদার ও এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে অন্য অরেকটি প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, ওই উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়নে ঈদ উপলক্ষে মোট দুই হাজার ৩৬৬ জন দরিদ্র মানুষকে বিতরণের জন্য ২৩ টন ৬৪০ কেজি চাল বরাদ্দ হয়। সেই চাল থেকে এক টন পরিমাণ গোপনে বিক্রি করে দেওয়া হয়।
এ ধরনের সহায়তা কর্মসূচি ও গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নের নামে লুটপাটের খবর নতুন নয়। ভিজিএফ, কাবিখা, কাবিটা, টিআর ইত্যাদির আওতায় চলে অবাধে লুণ্ঠন। এভাবে গ্রামীণ উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা চলে যায় সুবিধাভোগী একটি গোষ্ঠীর হাতে। ভিজিএফের চাল চলে যায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের পছন্দের মানুষের কাছে। কখনো কখনো তা বিক্রি করে দেওয়া হয় কালোবাজারে।
এ ধরনের ঘটনা অনেক আগে থেকেই। জনপ্রতিনিধিরা নিজেদের লোকদের পকেট ভারী করতে গিয়ে অনেক সময় এ ধরনের কাজ করেন। নিজেদের লোকদের কর্মসংস্থান করতে গিয়ে অনেক ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে উন্নয়ন বরাদ্দের টাকা লুটপাট করার অভিযোগও পাওয়া যায়। এভাবেই দলীয় নেতাকর্মী ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের পকেট ভারী হয়।
এ ধরনের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া দরকার। ভোট না দেওয়ায় জেলেদের সহায়তা বন্ধ করা অপরাধ। যেমন অপরাধ ভিজিএফের চাল কালোবাজারে বিক্রি করে দেওয়া। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। আমরা আশা করি, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখবে।





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩
ই মেইল: [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};