শুক্রবার ২ ডিসেম্বর ২০২২
১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ভারতীয় নাগরিককে জন্ম-ওয়ারিশ ও নাগরিকত্ব সনদ দেওয়ার অভিযোগ
প্রকাশ: সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম আপডেট: ২৬.০৯.২০২২ ১:২৫ এএম |

মো. হাবিবুর রহমান, মুরাদনগর||
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার ১৩নং মুরাদনগর সদর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে এক ভারতীয় নাগরিককে জন্ম সনদ, ওয়ারিশ সনদ ও নাগরিকত্ব সনদ দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভারতীয় ওই নাগরিককে গ্রাম : করিমপুর, ডাকঘর ও উপজেলা মুরাদনগর, জেলা : কুমিল্লা দেখিয়ে মুরাদনগর সদর ইউনিয়ন থেকে জন্ম, ওয়ারিশ ও নাগরিকত্ব সনদ দেওয়া হয়েছে। উপজেলার করিমপুর গ্রামের মৃত গয়াচরন দাসের ছেলে মাখন চন্দ্র দাস এমন অভিযোগ এনে চলতি বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ করেন।
অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাৎক্ষনিক ভাবে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেন। তদন্ত কর্মকর্তা সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাক আহম্মেদ, সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন ও অভিযোগকারী মাখন চন্দ্র দাসকে রবিবার সকাল ১০টায় তার কার্যালয়ে উপস্থিত থাকার জন্য নোটিশ দেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, কোন ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকলেও শুধুমাত্র জন্মসনদ দিয়েই বাংলাদেশে পাসপোর্ট করা যায়। তাই তড়িৎ গতিতে ব্যবস্থা না নিলে এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে একটি চক্র মাথাচারা দিয়ে উঠতে পারে। যারা ভারতীয় নাগরিককে ভুয়া জন্ম, ওয়ারিশ ও নাগরিকত্ব সনদ দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা উপার্জনে জড়িত, তাদেরকে আইনের আওতায় এনে যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে সক্রিয় হয়ে ওঠবে ওই চক্রটি।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের কাকরাবন গোমতী থানার রাজধরনগর গ্রামের মৃত মুকুন্দ চন্দ্র দাসের ছেলে হারাধন চন্দ্র দাস যার ভারতীয় পাসপোর্ট নম্বর আর-৭৫৮৯৫০৩ ও ভারতের পিন নম্বর ৭৯৯০১৩। তার নামে ২০১৭ সালের ১৯ আগষ্ট বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার করিমপুর গ্রাম দেখিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি ডিজিটাল জন্ম সনদ (যার নম্বর ১৯৫৮১৯৩৮১৫৪১০৯১৬৭), চলতি বছরের ২৯ জুন একটি নাগরিকত্ব সনদ (যার নম্বর ২০২২১৯১৮১৫৪০১১৩৮৮) ও একই তারিখে একটি ওয়ারিশ সনদ (যার নং ২০২২১৯১৮১৫৪০০১১১৮) ইস্যু করা হয়। দেখা যায়, হারাধন চন্দ্র দাসের ভারতীয় পাসপোর্টে তার জন্ম তারিখ ২ জানুয়ারী ১৯৬১ থাকলেও বাংলাদেশে ইস্যুকৃত জন্ম সনদে তার জন্ম তারিখ ২ মে ১৯৫৮ দেখানো হয়েছে।
অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা ও উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. কবির আহামেদ দৈনিক কুমিল্লার কাগজকে বলেন, ইউএনও স্যারের নির্দেশে বিষয়টির অধিকতর তদন্ত চলছে। যেহেতু এটা একটা জটিল বিষয়, সেহেতু তদন্তের গভীরে পৌঁেছ রহস্য উদঘাটন করতে কিছুদিন সময় লাগবে।
এ বিষয়ে মুরাদনগর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমেদের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করেও মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন দৈনিক কুমিল্লার কাগজকে বলেন, যাকে জন্ম, ওয়ারিশ ও নাগরিকত্ব সনদ দেওয়া হয়েছে, তাদের পূর্ব পুরুষরা  এ দেশেই থাকতো। বর্তমানে তাদের নামে অনেক জায়গা সম্পত্তি রয়েছে। তাই তাকে জন্ম, ওয়ারিশ ও নাগরিকত সনদ দেওয়া হয়েছে।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন ভূইয়া জনি দৈনিক কুমিল্লার কাগজকে বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রমান পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।












সর্বশেষ সংবাদ
কেন্দ্র দখলের অভিযোগে কুবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন পণ্ড!
দাউদকান্দি-বরুড়া চার ইউপিতে ১৯৬ জনের মনোনয়ন পত্র দাখিল
বিজিবি কুমিল্লা সেক্টর সদর দপ্তরের ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
মুক্তিযোদ্ধা দিবসে কুমিল্লায় মুক্তিযোদ্ধাদের যৌথ সভা
কুমিল্লায় র‌্যাবের পৃথক অভিযানে চার মাদক কারবারী গ্রেফতার
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
কুমিল্লায় ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে দ্বন্দে কিশোর খুন
কাশিমপুর কারাগারে একজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর
কুমিল্লায় বন্ধুকে হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ড
৫৬ লাখ ভিডিও ডিলিট করলো ইউটিউব
১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনেই বিএনপির গণসমাবেশ
Follow Us
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩, +৮৮ ০১৭১১ ৯৯৭৯৬৯, +৮৮ ০১৯৭৯ ১৫২৪৪৩, ই মেইল: [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত, কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০২২ | Developed By: i2soft