.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

মনোহরগঞ্জে দুর্ধর্ষ ডাকাতি: ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট।। একজন আহত
Share
মনোহরগঞ্জ উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের কমলপুর গ্রামে ১৯জুলাই বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়। সশস্ত্র ডাকাতদল নগট টাকাসহ ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে। ডাকাতদলের হামলায় একজন গুরুতর আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ বিষয়ে গতকাল শুক্রবার মনোহরগঞ্জ থানায় ১টি মামলা হয়েছে। একের পর এক ডাকাতির ঘটনায় সাধারণ মানুষআতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। পুলিশ ও মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ১৫/২০জনের মুখোশপরা সশস্ত্র ডাকাতদল রাত ২টার দিকে ঘরের দরজা ভেঙ্গে কমলপুর গ্রামের আবদুর রহমান মমিনের ঘরসহ একই বাড়ির ৪/৫টি ঘরে ঢুকে পড়ে। অস্ত্রের মুখে ঘরের লোকজনকে জিম্মি করে তাদের হাত পা মুখ বেঁধে ফেলে ডাকাতদল। এসময় ডাকাতরা নগদ ৩ল ৬৫হাজার টাকা ২০ ভরি স্বর্ণালংকার ৫টি মোবাইলসহ বিভিন্ন দামী ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাতরা একই গ্রামের আমেরিকা প্রবাসী ডা: শামছুদ্দিন আহমেদের বাড়িতেও প্রবেশ করে। ওই বাড়িতে তেমন উল্লেখযোগ্য কোনো মালামাল না পেয়ে বিুব্ধ হয়ে ডাকাতরা বাড়ির কেয়ার টেকার আবদুল বাতেনকে বেদম মারপিট করে। গুরুতর আহত আবদুল বাতেনকে প্রথমে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে এবং পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সশস্ত্র ডাকাতরা বাড়ির মহিলাদের উপরও শারীরিক নির্যাতন চালায়। মনোহরগঞ্জ থানার ওসি দুলাল মাহমুদ জানান, তিনি ও তার ফোর্স ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছেন। ডাকাতির বিষয়ে আবদুর রহমান মমিন বাদী হয়ে মনোহরগঞ্জ থানায় একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে একের পর এক মনোহরগঞ্জের প্রত্যন্ত গ্রামগঞ্জে ডাকাতির ঘটনায় সাধারণ মানুষ আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। অনেক গ্রামেই এখন মানুষ পালাক্রমে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD