.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

ওয়েডের শতকে ডমিনিকায় দাপট অস্ট্রেলিয়ার
Share
ম্যাথিউ ওয়েড তবে কী এক ঢিলে দুটি পাখি মারলেন! এক, টেস্ট উইকেটকিপার হিসেবে পোক্ত করলেন নিজের আসন। দুই, শেষ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার নিরংকুশ প্রাধান্য নিশ্চিত করলেন সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে। ডমিনিকায় মঙ্গলবার তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হতাশায় ডোবায় ওয়েডের সেঞ্চুরি। অথচ, স্বাগতিকরা দিনটা শুরু করেছিল বেশ ভালোভাবে। কিন্তু ওয়েডের শতকে অস্ট্রেলিয়া ৩২৮-এ পৌঁছার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিষ্প্রভ ব্যাটিং দুদিনেই সফরকারীদের কর্র্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করে। ত্রিনিদাদ টেস্ট ড্র হওয়ায় ফ্র্যাংক ওরেল ট্রফি নিজেদের কাছেই রেখে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে সুযোগ ছিল শেষ টেস্ট জিতে সিরিজ ১-১ করার। প্রথম দিনের উজ্জীবিত নৈপুণ্য সেই সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল। কিন্তু ২৪ ঘণ্টা না যেতেই তাদের আশা পরিণত হল হতাশায়। দ্বিতীয় দিন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৬৫/৮। তখনও তারা ১৬৩ রানে পিছিয়ে। চন্দরপল ৩৪ ও রামপল ২৪। বেন হিলফেনহসকে (১৯) সঙ্গে নিয়ে ওয়েড নবম উইকেটে ১০২ রান যোগ করে হয়তো ম্যাচের ভাগ্যই গড়ে দিয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের টপ ও মিডল অর্ডারে চিড় ধরিয়েছেন নাথান লায়ন (৩/৪৯) এবং তার সতীর্থরা। তৃতীয় দিনে তাই চন্দরপলের অনেক কাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংস শুরু হতে না হতেই বিপর্যয়। তৃতীয় ওভারেই ব্রাথওয়েটকে ফিরিয়ে দিয়ে সূচনাটা করেন হিলফেনহস। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তখন ১/১। কিয়েরন পাওয়েল (৪০) ও আদ্রিয়ান বারাথ ৬১ রান যোগ করেন দ্বিতীয় উইকেটে। বারাথকে (২৯) ফিরিয়ে দিয়ে জুটি ভাঙেন লায়ন। এরপর শুরু হয় ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়া। ৪০ করতেই ঘাম ছুটে যায় পাওয়েলের। নরসিং ডিওনারিন (৭) হ্যারিসের বলে লেগ বিফোর হন। অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি (১০) রানআউট হলে বরাবরের মতো দায়িত্বটা এসে পড়ে চন্দরপালের কাঁধে। এর আগে অস্ট্রেলিয়া তাদের আগের দিনের সংগ্রহে আরও ১১৬ রান যোগ করে শেষ তিন উইকেটে। ওয়েড ও হিলফেনহসের মধ্যে ১০২ রানের পার্টনারশিপ নবম উইকেটে একটি অস্ট্রেলীয় রেকর্ড। ১১৯ রান দিয়ে ছয় উইকেট নেন ক্যারিবীয় স্পিনার শিলিংফোর্ড। ক্রিকইনফো।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD