.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

মহাসড়কে ঢিলেঢালা হরতাল
Share
বিএনপির ডাকা হরতালের দ্বিতীয় দিনে ঢিলেঢালা হরতাল হচ্ছে ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে। রবিবারের তুলনায় সোমবার সকাল থেকে অনেক বেশি যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে। কুমিল্লার ময়নামতি থেকে দাউদকান্দি পর্যন্ত মহাসড়কের প্রায় ৫০ কিলোমিটার এলাকায় শুধুমাত্র দাউদকান্দি ও বুড়িচং উপজেলা ব্যতিত ৭টি উপজেলার ১৮ দলের নেতা-কর্মীরা হরতালের পক্ষে মাঠে নামেনি। সকাল ৯টায় মহাসড়কের নিমসার এলাকায় বুড়িচং উপজেলা বিএনপির সভাপতি মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে নামমাত্র মিছিল করলেও পরবর্তীতে আর কোন পদক্ষেপ না থাকায় এবং সকাল ১১টায় কুমিল্লার দাউদকান্দিতে উপজেলা বিএনপির সভাপতি একেএম সামছুল হক এর নেতৃত্বে অঙ্গসংগঠন হরতালের পক্ষে মহাসড়কে মিছিল বের করলে পুলিশ বাঁধা দেওয়ায় হরতালের আমেজ নষ্ট হয়ে যায়। সোমবার সকাল থেকে দূর-পাল্লার মালবাহী ট্রাক, লোকাল বাস, সিএনজি অটোরিক্সার চলাচল ছিল লক্ষ্যণীয়। দুপুর পর্যন্ত দূর পাল্লার বাস চলাচল না করলেও দুপুরের পর থেকে সকল শ্রেণীর পরিবহন স্বাভাবিক গতিতে চলাচল করতে শুরু করে। বিরোধী দলের ডাকা হরতাল প্রতিহত করতে মহাসড়কের চলে পুলিশের মহড়া। বিভিন্ন স্থানে লাঠি ও বন্দুক হাতে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। কুমিল্লার পদুয়া বাজার থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী কভার্ড ভ্যানের চালক জাহাঙ্গীর আলম জানান, চট্টগ্রাম থেকে মাল নিয়ে ভোরে কুমিল্লার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকায় এসেছি। সেখানে কয়েক ঘন্টা বিশ্রাম করে সোমবার ১১টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করি। চান্দিনার মাধাইয়া পর্যন্ত আসতে কোথাও কেউ বাঁধা দেয়নি। কুমিল্লা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাজিদ হোসেন জানান, জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার মান অক্ষুন্ন রাখতে সকাল থেকেই মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে জেলা পুলিশ মোতায়েন রয়েছে এবং যতক্ষণ হরতাল চলবে ততক্ষণ পুলিশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD