পত্রিকা আপডেট-১২:৩০ ।। সর্বশেষ খবর আপডেট ২৪ ঘন্টা
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

মুরাদনগরে বাড়ছে অপচিকিৎসা
Share
নিজস্ব প্রতিবেদক: মুরাদনগর উপজেলা সদর এবং আশে পাশের ইউনিয়নগুলোতে ঝাঁড় ফুক তাবিজ-টোনা নির্ভর অপচিকিৎসা ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে। কবিরাজ ও তান্ত্রিকদের খপ্পরে পড়ে নিরীহ লোকজন স্বাস্থের পাশাপাশি আর্থিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার ধামঘর, আড়ালিয়া, ঘোড়াশাল, সাতমোড়া, রায়তলা, লক্ষ্মীপুর, আমপাল, পাচঁকিত্তা, বাঁশকাইট, টনকী, ত্রিশ, কামাল্লা ও কোম্পানীগঞ্জ বাজারে কবিরাজ এর ঘর ছাড়াও এ উপজেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শতাধিক করিবাজ ও তান্ত্রিক চিকিৎসার প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তারা সাধারণ মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। কোনো কোনো কবিরাজ ও তান্ত্রিক টোটকা চিকিৎসার ফাঁদ পেতে কোটি বনে গেছে। শুধু অসচেতন ও অশিক্ষিতই নয় তাদের চটকদার কথায় বশিভূত হয়েছেন অনেক শিক্ষিত মানুষও। এদের নির্ধারিত কোন ফি নেই। রোগিদের আর্থিক অবস্থা আচঁ করে তারা ফি আদায় করে থাকেন। ফি হিসেবে ৫০ টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত আদায় করে থাকেন। এসব কবিরাজকে ঘিরে গড়ে উঠছে ওই এলাকায় এক শ্রেণীর দালাল চক্র। তাদের সঙ্গে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা ও প্রভাবশালীরা রয়েছেন। এসব কবিরাজ ও তান্ত্রিকদের কাছে চিকিৎসা নেয়া কয়েক রোগিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সুফল পেয়েছেন কিনা তা তারা নিজেরাই বুঝতে পারেন না। তান্ত্রিক কবিরাজের নিষেধও থাকে এ ব্যাপারে কথা না বলার। এসব কবিরাজের সরকারি অনুমোদন কিংবা অনুমতি নেই। উপজেলা প্রশাসন কিংবা সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য বিভাগের কোন নজরদারি না থাকায় বেপোরোয়া হয়ে উঠছে ওইসব ভন্ড তান্ত্রিক কবিরাজরা।
 
Total Reader : Hit Counter by Digits || The Site Design Mantain & Developed by RiverSoftBD