.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

ব্রাহ্মণপাড়ায় প্রেমিক যুগল আটক
Share
কুমিল্লার ব্রা?হ্মণপাড়ার অনন্তপুর এলাকায় প্রেমিকের হাত ধরে উধাও হওয়ার সময় উপজেলার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ৪ এপ্রিল সকালে আটক করে ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ। জানা গেছে, ৪ এপ্রিল সকালে শশীদল ইউনিয়নের অনন্তপুর হয়ে নাম্বার বিহীন একটি সিএনজি পর্দা লাগিয়ে যাওয়ার পথে কর্তব্যরত ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ সিএনজিটিকে সন্দেহ করে তল্লাশী চালায়। এসময় সিএনজিতে থাকা দুইজন প্রেমিক যুগলের হাব ভাব ও চাহনি দেখে সন্দেহ ঘনিভূত হয়। পরে উভয়েই সাবলিল ভাবে পুলিশের নিকট জানায় যে, মেয়েটি নাগাইশ গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে নাগাইশ জাহিদুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী শিল্পী আক্তার (১২), তার ক্লাস রোল নং-১২৬ ও ছেলেটি একই গ্রামের মেয়ের পাশের বাড়ির আব্দুল মান্নানের ছেলে ইলেকট্রিক মেকার বিল্লাল হোসেন (২২)। তাদের সীকারোক্তির পর ব্রা?হ্মণপাড়া থানার এ.এস.আই সাইফুর রহমান তাদেরকে সিএনজি সহ থানায় নিয়ে আসে। এসময় তারা সাংবাদিকদের বলে, আমরা উভয় উভয়কে ভালবাসি। বিয়ে করতে চাই। আমাদের অভিভাবকের সম্মতি না থাকায় ঘটনার দিন সকালে আমরা উভয়ে বাড়ি থেকে বিয়ের উদ্দেশ্যে পালিয়ে যাচ্ছিলাম। আটককৃত শিল্পী আক্তার সাংবাদিকদের বলে, আমি স্বেচ্ছায় তার সাথে বিয়ের উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বাহির হই। দীর্ঘদিন যাবৎ তার সাথে আমার প্রেম ছিল। আটককৃত বিল্লাল হোসেন বলে, শিল্পীর সাথে আমার ৩ বছর যাবৎ প্রেম ছিল। আমার প্রেমের টানে বিয়ের উদ্দ্যেশ্যে ঘর থেকে বাহির হয়েছি। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকাতে কয়েকবার সালিশী বৈঠক হয়। সালিশে আমাকে কয়েকবার মারধর করেছে। তারপরও আমি তাকে ভুলতে পারছি না। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ খান হুমায়ুন কবির ঘটনাটির সততা স্বীকার করেন। এ এস আই সাইফুর রহমান জানান- একটি যাত্রীবাহী সিএনজি পর্দা লাগিয়ে কুমিল্লার উদ্দ্যেশ্যে রওয়ানা হলে গাড়িটি আমার সন্দেহ হয়। গাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে উভয়ের কথাবার্তা সন্দেহ হলে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আপোষ মিমাংসার চেষ্টা চলছে।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD