.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

নেপালে দুটি স্বর্ণের আশা
Share
নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে ২২ মার্চ বসবে সাউথ এশিয়ান ওয়েটলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপের আসর। তিন দিনের প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন বাংলাদেশের ১২ জন ভারোত্তোলক। ছয়জন পুরুষ ও ছয়জন মহিলা ভারোত্তোলকের সঙ্গে দুজন কোচ ও একজন ম্যানেজার যাবেন বুধবার একথা জানান বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক উইং (অব.) কমান্ডার মহিউদ্দিন আহমেদ। আমরা তো সারাবছরই অনুশীলন করি। আসন্ন সাউথ এশিয়ান ওয়েটলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য তিন মাস আগে থেকে অনুশীলন শুরু করেছি। আশাকরি ভালো কিছু করতে পারব, বলেন মোল্লা সাবিরা। সাত দেশের প্রায় শখানেক প্রতিযোগী চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেবেন। মহিউদ্দিন বলেন, দীর্ঘ তিন মাস অনুশীলন করে ছেলেমেয়েরা নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে। আমরা ২১ মার্চ নেপালের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ব। পুরুষ ভারোত্তোলকরা হলেন ৬৯ ওজন শ্রেণীতে মোঃ হামিদুল ইসলাম, ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে শিমুলকান্তি সিংহ, ৮৫ কেজি ওজন শ্রেণীতে মোমিনুল ইসলাম, ৫৬ কেজি ওজন শ্রেণীতে মিজানুর রহমান, ১০৫ কেজি ওজন শ্রেণীতে বিদ্যুৎ কুমার রায় এবং ১০৫+ ওজন শ্রেণীতে মোঃ ফরহাদ। মহিলাদের মধ্যে ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণীতে মোল্লা সাবিরা, ৫৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে ফুলবতি চাকমা ও মারিয়া আক্তার, ৫৮ কেজি ওজন শ্রেণীতে ফাহিমা আক্তার ময়না, ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে শাহরিয়ার সুলতানা সূচী এবং ৭৫ কেজি ওজন শ্রেণীতে জিয়াসমিন আক্তার অ্যানি পদকের জন্য লড়বেন। কোচ কাজল দত্ত ও মোতালেব হোসেন পুলু। দলের ম্যানেজার মুজিবুর রহমান। কর্মকর্তা হিসেবে যাচ্ছেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক উইং কমান্ডার (অব.) মহিউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, পুরুষ ভারোত্তোলকদের মধ্যে আমাদের বড় আশা ৬৯ কেজি ওজন শ্রেণীতে হামিদুল ইসলাম। যিনি ঢাকা একাদশ সাফ গেমসে দেশকে স্বর্ণপদক এনে দিয়েছিলেন। এছাড়া ১০৫ কেজিতে বিদ্যুৎ কুমারকে নিয়েও আমরা আশাবাদী। মহিলাদের মধ্যে ৫৮ কেজি ওজন শ্রেণীতে পদকের জন্য ফাহিমা আক্তার ময়নার দিকেই আমাদের নজর থাকবে। এছাড়া ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণীতে দেশসেরা অন্যতম মহিলা ভারোত্তোলক মোল্লা সাবিরাতো থাকছেনই। সব মিলিয়ে ছয় থেকে আটটি পদকের প্রত্যাশা নিয়েই আমরা নেপালে যাচ্ছি। মোল্লা সাবিরা বলেন, আমরা পারব। সেই আবিশ্বাস আমাদের রয়েছে। সাত দেশের এই প্রতিযোগিতায় অন্তত দুটি স্বর্ণপদক আমরা আশা করছি।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD