.
 
Publish Date: 30 Nov -0001 00:00:00

চান্দিনায় জমে উঠেনি ঈদ বাজার
Share
রমজানের ইতি টানা শুরু হয়ে গেছে। ঘনিয়ে এসেছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। রমজানের শেষ প্রান্তে ঈদের আর মাত্র পাঁচ দিন বাকি। প্রতি বছর ঈদ মৌসুমে ঈদের পূর্বদিন গভীর রাত পর্যন্ত চান্দিনার সকল বস্ত্র দোকানগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড় দেখা গেলেও এবছর তার ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে। রমজানের মাঝা-মাঝিতে চান্দিনা বাজারের কাপড় দোকানগুলোতে ক্রেতাদের আনা-গোনা ছিল চোখে পড়ার মত। কিন্তু ঈদের পূর্ব মুহুর্তে বাজারের অধিকাংশ দোকানগুলোতে ক্রেতা শূন্য দেখা যাচ্ছে। অপরদিকে গত বছরগুলোর তুলনায় এবছর ঈদের এক সপ্তাহ পূর্ব থেকেই লন্ডি দোকানগুলোতে ভীড় জমাতে শুরু করেছে লোকজন। বাড়তি চাপ সামলাতে দিন-রাত হিমসিম খেতে হচ্ছে লন্ডি ব্যবসায়ীদের। সরেজমিনে চান্দিনা কাপড় পট্টির উপহার বস্ত্র বিতান, সিংহ ক্লাথ স্টোর, রামঠাকুর বস্ত্রালয়, জয়গুরু বস্ত্রালয়, শিব বস্ত্রালয়, শ্রীগুরু বস্ত্রালয়, নিপা গার্মেন্টস, ইত্যাদি ফ্যাশন, অন্যা ফ্যাশনসহ বিভিন্ন কাপড় দোকানগুলোতে ঘুড়ে দেখা গেছে অধিকাংশ কাপড় দোকানগুলো ক্রেতা শূন্য। অনেক দোকানে ক্রেতা শূন্য থাকায় দোকানদারদের চোখে ঘুম ঘুম ভাবও দেখা গেছে। কথা হয় চান্দিনা বাজারে শাড়ি কাপড়ের বড় ব্যবসায়ী সিংহ ক্লাথ স্টোরের মালিক সুব্রত সিংহ এর সাথে। তিনি জানান, এবছর ঈদ উপলক্ষ্যে শাড়ি কাপড়ের আধুুনিক নামে তেমন কোন ডিজাইন আসেনি। পুরাতন ডিজাইনের কাপড়ই বেশি। রমজানের মাঝামাঝি সময়ে ক্রেতাদের আনা-গোনা বেশি ছিল। কিন্তু ঈদ উপলক্ষ্যে ব্যতিক্রম কোন ডিজাইন না থাকায় ক্রেতারা ঘরমুখো হয়ে গেছে। এদিকে কিশোরী ও যুবতী মেয়েদের থ্রি-পিচ, টু-পিচ পোশাকেও তেমন নতুনত্ব না থাকায় ক্রেতা শূন্যতার কারণ বলে জানিয়েছেন একাধিক ব্যবসায়ী। চান্দিনা বাজারে থ্রি-পিচ কিনতে আসা চান্দিনা মহিলা কলেজের ছাত্রী শারমিন আক্তার জানান, মূলত চান্দিনার দোকানগুলোতে আধুনিক ডিজাইনের তেমন কোন পোশাক রাখে না। যারফলে অধিকাংশ ক্রেতারা কুমিল্লারমত জেলাশহরের মার্কেটে চলে যায়। আমি চান্দিনা বাজারের অধিকাংশ দোকানগুলোতে ঘুড়ে গত বছরের পোশাক-ই বেশি দেখতে পেয়েছি। এবছরের নতুন ডিজাই বিদেশী সনেট, সিলভিয়া নামের থ্রি-পিচসহ ভালো কোন কালেকশান তেমন নেই বললেই চলে। আর যে দোকানগুলোতে কিছু আছে সেগুলোর দামও চায় আকাশ চুম্বি। চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ এর ছাত্র ফরহাদ আহমেদ জানান, আমি ঈদের আগে যেসব মডেলের শার্ট ও পেন্ট কিনেছি ঈদ মার্কেটে ওই সব পোশাকগুলোই বিভিন্ন নামে চলছে। এবারের ঈদে নতুন কোন কাপড় কিনবা না। তাই পুরাতন শার্ট ও পেন্টগুলো লন্ডি দোকানে দিয়ে এসেছি। চান্দিনা কাপড় বাজারের লন্ডি দোকানদার রতন জানান, আমি প্রায় ১৫ বছর যাবৎ এ ব্যবসা করে আসছি। কিন্তু এবারের মতো এতো কাপড় কখনও পাইনি। এবার ঈদের ১৫দিন পূর্ব থেকেই কাপড়ের বাড়তি চাপ থাকায় আমি একজন কর্মচারী নিয়োগ দিয়েছি।
 
The Sire Design Mantain & Developed by RiverSoftBD