ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
বরুড়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে ব্যাপক সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৮
১৪৪ ধারা জারি---
Published : Sunday, 8 December, 2019 at 12:00 AM, Update: 08.12.2019 1:49:21 AM, Count : 1445
বরুড়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে ব্যাপক সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৮ নিজস্ব প্রতিবেদক: কুমিল্লার বরুড়ায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সকালে বরুড়া পৌরসভার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ এলাকায় একই স্থানে দুই গ্রুপের সম্মেলনের ডাকা নিয়ে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে এক পুলিশ সদস্যসহ দুই গ্রুপের অন্তত ৮ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।
এদিকে দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণায় সম্মেলনস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা প্রশাসন। শনিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনিসুল ইসলাম বরুড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সম্মেলনস্থলে এসে হ্যান্ড মাইকে ১৪৪ ধারা জারির কথা ঘোষণা করেন। অবশ্য সম্মেলনকে ঘিয়ে সকাল থেকেই সংঘর্ষে জড়াতে থাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিবাদমান দ্রুটি গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। দুই পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ সময় বরুড়া থানার এএসআই দোলনসহ দুই গ্রুপের অন্তত ৮ জন নেতা-কর্মী আহত হন।বরুড়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে ব্যাপক সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৮ দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বরুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগে দুটি পক্ষ রয়েছে। এক পক্ষে রয়েছেন কুমিল্লা-৮ (বরুড়া) আসনের সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক নাছিমুল আলম চৌধুরী। অপর পক্ষে রয়েছেন বরুড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বরুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এ এন এম মইনুল ইসলাম। দুই পক্ষই একই সময়ে বরুড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সম্মেলন ডাকলে বৃহস্পতিবার রাত থেকে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। গতকাল সকাল নয়টায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অনুসারীরা ঈদগাহ মাঠে সাংসদের অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে প্যান্ডেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় একটি মোটরসাইকেলেও আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়, অনেকগুলো চেয়ার ভাঙচুর করা হয়। এমন পরিস্থিতিতে সকাল সাড়ে নয়টায় বরুড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনিসুল ইসলাম বরুড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে ১৪৪ ধারা জারি করেন।
পরে সাংসদ নাছিমুলের নেতৃত্বে বরুড়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে এক পক্ষের কমিটি গঠন করা হয়। আর বরুড়া মধ্যবাজার বাসস্ট্যান্ডে চেয়ারম্যান মইনুলের নেতৃত্বে আরেক পক্ষের সম্মেলন হয় বলে জানা গেছে।
কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, একই স্থানে দুই পক্ষ সম্মেলনের ডাক দেওয়াতে সংঘর্ষের আশংকায় উপজেলা প্রশাসন সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
বরুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া বলেন, এমপি নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল আমাদের না জানিয়ে সম্মেলন করতে চেয়েছিলেন। তাছাড়া জেলা কমিটির সভাপতি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল দেশের বাইরে আছেন, তাকে না জানিয়ে তড়িঘড়ি সম্মেলন করার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন তিনি। তাই আমরাও কাউন্সিল করার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। এই অবস্থায় ১৪৪ ধারা জারি করল প্রশাসন।
তবে নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল এমপি বলেন, আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক। আমরা ওই স্থানে সম্মেলন আহবান করি অনেক আগেই। তবে ওইখানে আওয়ামী লীগের অন্য কেউ সম্মেলনের ডাক দিয়েছে কিনা সেটা আমি জানি না।
এদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুলের সমর্থকরা পাশে সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে কাউন্সিল সম্পন্ন করেন। এতে প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন বরুড়া উপজেলা আ’লীগের আহ্বায়ক কুমিল্লা (দঃ) জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল এমপি। দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লা (দঃ) জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি ডা. আবদুর রহিম। এতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজ আহাম্মদ, আ’লীগ নেতা আবদুর রশিদ, কাউসার সেলিম, ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন ভূঁইয়া, রবিউল আলম, আবু ইসহাক প্রমুখ। উপস্থিত সকল কাউন্সিলরদের সামনে প্রস্তাব ও সমর্থনে বরুড়া উপজেলা আ’লীগের সভাপতি নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল এমপি, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন নির্বাচিত হন।
অপরদিকে মইনুল ইসলামের সমর্থকরা বরুড়া জিরো পয়েন্টে উপজেলা চেয়ারম্যান এএনএম মইনুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রস্তাব ও সমর্থনের মাধ্যমে উপজেলা চেয়ারম্যান এএনএম মইনুল ইসলাম সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ভিপি মজিবুর রহমান নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।
এ বিষয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সত্যজিৎ বড়–য়া বলেন, আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ রাখার স্বার্থে পুলিশ প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। দুই পক্ষকে কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে কাউন্সিল করতে দেওয়া হয়নি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনিসুল ইসলাম বলেন, জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft