ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
এবার অস্বস্তি চালের বাজারে, কেজিতে বেড়েছে ৪ টাকা
Published : Saturday, 7 December, 2019 at 12:00 AM, Count : 71
পেঁয়াজের মূল্য নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে অস্বস্তি এখনও কাটেনি। এরইমধ্যে বেড়ে চলেছে চালের মূল্যও। সরকারি হিসাবেই গত এক মাসের ব্যবধানে প্রতিকেজি চালে দাম বেড়েছে ৪ টাকা। গত ৬ নভেম্বর যে চাল (মোটা চাল) কেজিপ্রতি ৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে, সেই চাল ডিসেম্বরের ৬ তারিখে বিক্রি হচ্ছে ৩৪ টাকা দরে।
চালের দাম বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে বাংলাদেশ রাইস মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নাঈম মিয়া বলেন, ‘প্রতিবছরই এই সময় চালের মূল্য একটু বাড়ে। মিনিকেট চালের মূল্য কিছুটা বেড়েছে।’ তিনি বলেন, ‘কিছু দিনের মধ্যেই নতুন চাল বাজার ঢুকবে। নতুন চাল আসার আগমুহূর্তে বাজার খানিকটা চড়া হয়। তবে, বাজারে চালের কোনও সংকট নেই। কাজেই এখন একটু বাড়লে অচিরেই আবার কমা শুরু হবে।’
বিক্রেতারা বলছেন, চিকন চালের পাশাপাশি মোটা চালের মূল্যও বেড়েছে। পাইকারি বাজারে চালের মূল্য বাড়ার প্রভাব পড়ছে খুচরা বাজারেও।
সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশ অব বাংলাদেশ (টিসিবি)-এর তথ্য বলছে, গত এক মাসে সব ধরনের চালের মূল্য বেড়েছে। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে মাঝারি ধরনের চালের মূল্য। গত এক মাসে এই চালের মূল্য বেড়েছে ৮ দশমিক ৮৯ শতাংশ। গত ৬ নভেম্বর মাঝারি ধরনের চালের প্রতিকেজির মূল্য ছিল ৪২ থেকে ৪৮ টাকা। আর এই মাসে অর্থাৎ শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) এই চাল প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে ৪৬ থেকে ৫২ টাকা। অর্থাৎ এক মাসে প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৪ টাকা।
চালের মূল্য বেড়ে যাওয়ায় সীমিত আয়ের মানুষের মধ্যে অস্বস্তি দেখা দিয়েছে। রাজধানীর মুগদা এলাকার বাসিন্দা রোকন মাহমুদ বলেন, ‘জিনিসপত্রের মূল্য বেড়ে যাওয়ায় সীমিত আয়ের মানুষের নানা ধরনের বিপদ মোকাবিলা করতে হয়। মূল্য বেড়ে যাওয়ায় পর থেকে আমরা পেঁয়াজ খাওয়া কমিয়ে দিয়েছি। এখন চালের মূল্যও বেড়ে যাচ্ছে। তাহলে ভাতও কম খেতে হবে।’
তবে চাল নিয়ে কারও উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ে সেচ ভবনে কৃষকদের বাজারজাত করা সবজির হাটের ‘কৃষকের বাজার’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে পর্যাপ্ত চাল রয়েছে। চালের বাজার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে।’ তিনি বলেন, ‘চালের মূল্য মোটেই বাড়ছে না, সরু চালের মূল্য কিছুটা বেড়েছে, তবে যেটা বেড়েছে সেটা গতবারের থেকে অনেক কম। যেটা কম ছিল সেটা বেড়েছে।’
যদিও টিসিবির তথ্য অনুযায়ী, এক মাসের ব্যবধানে সব ধরনের চালের মূল্য ৩ থেকে ৪ টাকা বেড়েছে। গত এক মাসে গরিব খেটে খাওয়া মানুষের মোটা চালের মূল্য বেড়েছে ৫ দশমিক ৭১ শতাংশ। অর্থাৎ গত ৬ নভেম্বর প্রতি কেজি মোটা চাল বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা। আর আজ ৬ ডিসেম্বর সেই চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৪ টাকা থেকে ৪০ টাকা।
এদিকে, টিসিবির হিসাব অনুযায়ী, একমাসে পাইজাম ও লতা (উত্তম মানের) চালের মূল্য বেড়েছে ৮ দশমিক ৫১ শতাংশ। পাইজাম ও লতা (সাধারণ মানের) চালের মূল্য বেড়েছে ৬ দশমিক ৮২ শতাংশ। নাজির ও মিনিকেট (উত্তম মানের) চালের মূল্য বেড়েছে ৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ। নাজির ও মিনিকেট (সাধারণ মানের) চালের মূল্য বেড়েছে ৬ দশমিক ১৯ শতাংশ। সরু চালের মূল্য বেড়েছে ৬ দশমিক ৯৩ শতাংশ। আর মাঝারি মানের চালের মূল্য বেড়েছে ৮ দশমিক ৮৯ শতাংশ।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft