ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
1316
রোমানার আহাজারিতে কাঁদে যাত্রাপুর
সড়ক দুর্ঘটনায় মুরাদনগরের এক পরিবারের ৪ জন নিহত
Published : Sunday, 8 November, 2020 at 12:00 AM, Update: 08.11.2020 12:49:59 AM
রোমানার আহাজারিতে কাঁদে যাত্রাপুরমো. হাবিবুর রহমান, মুরাদনগর ||২৫ বছর বয়সী রোমানার আহাজারিতে মুহুর্মুহু কেঁপে উঠছে মুরাদনগরের আকাশ-বাতাস। তার ভরপুর জীবন এক মুহূর্তেই যেন শূন্য হয়ে গেছে। মা-বাবার একমাত্র মেয়ে তিনি। চারটি ভাই থাকলেও তারা রয়েছেন প্রবাসে। আর বৃদ্ধ মা-বাবা গত শুক্রবার বিকেলে এক আত্মীয়র বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় পড়ে আরো দুই স্বজনসহ চলে গেছেন পৃথিবী ছেড়ে। হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন আরো দুই আপনজন। পরিবারের ৪ সদস্যকে একসঙ্গে হারিয়ে রোমানার জীবনে এখন কান্না ছাড়া আর কিছু নেই।  
জানা যায়, কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর গ্রামের নাবালক মিয়া পরিবার-পরিজন নিয়ে গত শুক্রবার তার ছোট ছেলে রাসেল মিয়ার শ্যালিকার বিয়েতে যোগ দেয়ার উদ্দেশ্যে সিএনজি অটোরিকশাযোগে পাশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের পোরতলায় ছেলের শ^শুরালয়ে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তাদের বহনকারী অটোরিকশাটি কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের কসবা উপজেলার সৈয়দাবাদ-মনকসাইর এলাকায় পৌঁছামাত্র বিপরীত দিক থেকে আসা কুমিল্লাগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় পেছন থেকে একটি প্রাইভেটকারও অটোরিকশাটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার তিন আরোহীর মৃত্যু হয় এবং হাসপাতালে নেয়ার পর আরো এক আরোহী মারা যান। তবে এ দুর্ঘটনায় ট্রাক কিংবা প্রাইভেটকারে থাকা কারো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
পরে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় নিহত ৪ জনকে গ্রামের বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেনÑ নাবালক মিয়া (৭২), তার স্ত্রী আয়শা খাতুন (৬০), তাদের এক ছেলে আল-আমিনের মেয়ে নাদিয়া আক্তার (৫) এবং ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৫৫)। আর গুরুতর আহতরা নাবালক মিয়ার ছোট ভাই খুরশিদ আলম (৬০) ও নাতনি জান্নাত আক্তারকে (৪) ব্রা?হ্মনবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এদিকে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যুর ঘটনায় যাত্রাপুর গ্রামে বইছে শোকের মাতম। খবর পেয়ে আশপাশের এলাকা থেকে মানুষজন ভিড় জমাচ্ছেন নিহতদের বাড়িতে। সান্ত¡না দিচ্ছেন বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে হারিয়ে বার বার মূর্ছা যাওয়া রোমানা আক্তারকে। কিন্তু কোনো সান্ত¡নাতেই থামানো যাচ্ছিল না তার আহাজারি। ‘আব্বা গো- মা গোÑ কারে আমি মা কইয়া ডাকমু, কে আমারে স্বামীর বাড়ি দেখতে যাইবো’... বলে বিলাপ করছেন আর একটু পর পর অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছিলেন রোমানা। তার বুকফাটা আর্তনাদ দেখে চোখ ছলছল হয়ে উঠে সান্ত¡না জানাতে আসা প্রতিবেশী ও এলাকাবাসীর। সেখানে তৈরি হয় এক হৃদয়বিদারক পরিবেশ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. এ বি এম মুসা চৌধুরী বলেন, ‘গুরুতর আহত অবস্থায় চারজনকে হাসাপাতালে নিয়ে আসা হয়। এর মধ্যে সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাতেমা বেগম নামে একজন মারা যান। বাকি তিনজনের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। একজন এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।’
যাত্রাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস ছালাম ভূইয়া সেলিম বলেন, ‘ব্রা?হ্মণবাড়িয়ার খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমানের ফোন পেয়ে দেরি না করে আমি ঘটনাস্থলে যাই, যেহেতু নাবালক মিয়ার পরিবারে কোনো পুরুষ সদস্য নাই। সব ধরনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে রাতেই লাশগুলো বাড়িতে আনার ব্যবস্থা করি। এ হৃদয়বিদারক দৃশ্য আমাকে তাড়া করে ফিরছে। সারাক্ষণ শুধু আমার চোখে মৃতদেহগুলো ভাসছে।’  
যাত্রাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, একই পরিবারের চারজনের এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকাজুড়ে শোকের বাতাস বইছে। একমাত্র মেয়ের আহাজারিতে  দেখতে আসা প্রতিবেশীদের চোখ গড়িয়ে পানি পড়ছে। দাওয়াত খেতে গিয়ে পরিবারের ৬ সদস্যের মধ্যে ৪ জনের ঘটনাস্থলে মৃত্যুর এমন ঘটনা এই গ্রামে আর ঘটে নাই।’   
জানতে চাইলে খাটিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, শুক্রবার দুপুরে কসবা উপজেলার কুটি চৌমুহনী থেকে নাবালক মিয়া তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আসার পথে কসবা উপজেলার মনকসাইর এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা কুমিল্লাগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় পেছন থেকে একটি প্রাইভেটকারও তাদের অটোরিকশাটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশায় তিনজন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর আরো একজনের মৃত্যু হয়।
ঘটনার পরপরই ট্রাকচালক পালিয়ে যায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, চারজনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।







© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};