ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
1887
এতো ভুয়া ডিবি কুমিল্লায় !
Published : Wednesday, 30 September, 2020 at 12:00 AM, Update: 30.09.2020 12:40:52 AM
এতো ভুয়া ডিবি কুমিল্লায় !তানভীর দিপু ।।

বেশ কিছু দিন ধরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে কুমিল্লায় একের পর এক অপকর্ম ঘটিয়ে চলেছে এক বা একাধিক অপরাধী চক্র। ভুয়া পরিচয়ধারী এসব চক্র কখনো গোয়েন্দা পুলিশ, কখনো র‌্যাব বা অন্য কোনো বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তা পরিচয়ে  লুট করছে  সাধারণ মানুষের টাকা-পয়সা। ব্যাংক বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে মোটা অংকের টাকা তোলার দৃশ্য ঘাপটি মেরে অনুসরণ করে পরে পথিমধ্যে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে সেই টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এ রকম একাধিক ঘটনা ঘটেছে গত কয়েকদিনেই। এ ছাড়া পুলিশ বা প্রশাসনের কর্মকর্তা পরিচয়ে চাকরি বা বদলির নাম করে হাতিয়ে নেয়া হয়েছে সাধারণ মানুষের শেষ সম্বল। অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে যে, কে ভুয়া ডিবি আর কে আসল ডিবি পুলিশ, তা নিয়ে বিভ্রান্তির মধ্যে পড়তে হচ্ছে কুমিল্লাবাসীকে।

এরই মধ্যে প্রতারক চক্রের বেশ কয়েকজন সদস্যকে গ্রেপ্তারও করেছে কুমিল্লা জেলা পুলিশ। পাশাপাশি এসব ভুয়া পরিচয়ধারীদের কাছ থেকে সতর্ক থাকতে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনসাধারণকে দেয়া হয়েছে বেশ কিছু পরামর্শ। বিশেষ করে, নিরাপদে ও সতর্কতার সাথে টাকা-পয়সা লেনদেন বা পরিবহনের নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ।

কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা কুমিল্লার কাগজকে বলেন, ‘আমরা গোয়েন্দা পুলিশ আমাদের কাজের স্বার্থে অনেক সময়ই বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করি। এখন ভুয়া কেউ যদি পুলিশের পরিচয় দিয়ে কোনো অপরাধ সংগঠিত করে, তার জন্য আসল পুলিশ দায়ী নয়। অভিযোগ পেলে আমরা এসব অপরাধের দ্রুত তদন্ত করি এবং ইতোমধ্যে অনেক অপরাধীকে গ্রেপ্তারও করেছি।’

কুমিল্লা র‌্যাবের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীরা অপরাধী ধরতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন। অপরাধীরাও সেসব কৌশল অবলম্বন করে মানুষের চোখ ধুলা দিচ্ছে। প্রতারণা করে ঠকাচ্ছে জনসাধারণকে। ইদানিং আমরা খুব তৎপরতার সাথে এসব চক্রকে ধরতে পারছি।’ তিনি আরো বলেন, তবে কেউ যদি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে কারো কাছে কিছু চায়, তাহলে তিনি পুলিশ বা র‌্যাবের সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ের নাম্বারে ফোন করতে পারেন। আর যদি কখনো কোনো নিরপরাধ মানুষকে কেউ ধরে নিতে আসে এবং তা সন্দেহজনক মনে হয়, তবে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে সংশ্লিষ্ট বাহিনীকে অবশ্যই দ্রুত জানাতে হবে।

জানতে চাইলে কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম কুমিল্লার কাগজকে বলেন, ‘ডিবি পুলিশের পরিচয়ে বিভিন্ন জায়গা থেকে টাকা লুটের ঘটনাগুলো আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। তবে অবশ্যই টাকা লেনদেন বা পরিবহনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। কেউ যদি পুলিশের পরিচয় দিয়ে কিছু চায় বা করতে বলে, তাহলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট থানা বা জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের যেসব ফোন নম্বর আছে সেখানে ফোন করে সহযোগিত চাইতে হবে। এছাড়া জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করলেই যেকোনো আইনি সেবা পাওয়া যাচ্ছে।’

 

গত কয়েক দিনের ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণে জানা যায়, গেল ৩ মাসে কুমিল্লার মুরাদনগর, দেবিদ্বার, দাউদকান্দি ও সদর দক্ষিণে পৃথক ৫টি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। এগেুলোর অধিকাংশই ঘটানো হয়েছে ভুয়া ডিবি তথা গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে। এর মধ্যে গত ১২ আগস্ট কুমিল্লার দেবিদ্বারে ইসলামী ব্যাংক শাখার এক গ্রাহককে গাড়িতে তুলে মারধর করে ১২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গত ২২ সেপ্টেম্বর ৪ ডাকাত সদস্যকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই ডাকাতদের জিজ্ঞাসাবাদে বিকাশ ব্যবসায়ীর সাড়ে ৫ লাখ টাকা ছিনতাইসহ আরও দুটি ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করে গ্রেফতাররা।

সর্বশেষ গত বুধবার ইসলামী ব্যাংক কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার শাখা থেকে ওই ব্যাংকের বিজয়পুর এজেন্ট ব্যাংকিং শাখা ম্যানেজার এ এইচ এম শফিকুল ইসলাম ৫ লাখ টাকা তুলে শাহ আলী সুপার পরিবহনের একটি বাসে বিজয়পুরের উদ্দেশে রওয়ানা করেন। বাসটি পদুয়ার বাজার সংলগ্ন হাজারি পেট্রোল পাম্পের সামনে এলে পেছন থেকে একটি প্রোবক্স প্রাইভেটকার এসে বাসের সামনে দাঁড়ায়। বাসটি থেমে গেলে প্রাইভেটকার থেকে কয়েকজন নেমে বাসে উঠে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে শফিকুল ইসলামকে ‘মামলা আছে’ বলে টাকার ব্যাগসহ নামিয়ে প্রাইভেটকারে তুলে নেয়। পরে তার সাথে থাকা ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি এলাকায় রাস্তার পাশে ফেলে দিয়ে চলে যায়। পরদিন বৃহস্পতিবার শফিকুল ইসলাম সদর দক্ষিণ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এরও আগে গত ১২ আগস্ট কুমিল্লার মুরাদনগরে ইসলামী ব্যাংক কোম্পানীগঞ্জ শাখা থেকে হানিফ শামীম নামে এক ব্যক্তি ১২ লাখ টাকা তুলে সিএনজি অটোরিকশাযোগে পাশের উপজেলা দেবিদ্বার ইসলামী ব্যাংক শাখায় জমা দিতে রওনা হন। তিনি কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের দেবিদ্বার পৌরসভায় পৌঁছলে মেরুন রঙের একটি প্রাইভেটকার সিএনজির গতিরোধ করে। তিন ব্যক্তি ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে শামীমকে প্রাইভেটকারে তুলে গামছা দিয়ে ওই তার হাত-পা, চোখ-মুখ বেঁেধ ফেলে কিল, ঘুষি ও লাঠি দিয়ে মারধর করে। পরে তার মোবাইল ফোনের সিম খুলে ১২ লাখ টাকা কেড়ে নিয়ে তাকে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নাজিরাবাজার এলাকায় সড়কের পাশে ফেলে যায়। পরে ভুক্তভোগী  হানিফ শামীম দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কায়দায় হাতকড়া পরিয়ে এক ব্যবসায়ীকে তুলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায় গত বৃহস্পতিবার। দাউদকান্দি উপজেলার  মতলব রোডের মোড় থেকে চার ব্যক্তি কালো রঙের হাইয়েস টিআরএক্স মাইক্রোবাসে করে সাইফুল ইসলাম (৩০) নামে ওই ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে যায়। মাইক্রোবাস থেকে নামা ওই চার ব্যক্তির মুখে মাস্ক, হাতে ওয়াকিটকি ও কোমরে পিস্তল গোঁজা ছিল। এ ঘটনায় শুক্রবার দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে সাইফুলের পরিবার। অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম কুমিল্লার কাগজকে আরো বলেন, ‘পুলিশ পরিচয়ে যারাই প্রতারণা করছে, আমরা তাদের ধরছি এবং আমাদের তৎপরতা অব্যাহত আছে। ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন বা পরিবহনের সময় যে কেউ পুলিশের সহযোগিতা নিতে পারে।’ এ ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোকেও তাদের আলাদা নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে বলে জানান পুলিশ সুপার। ##





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};