ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
596
 তবু আগুন পেঁয়াজ-বাজারে
রণবীর ঘোষ কিংকর:
Published : Monday, 21 September, 2020 at 12:00 AM, Update: 21.09.2020 2:09:22 AM
 তবু আগুন পেঁয়াজ-বাজারে*কুমিল্লায় পেঁয়াজ বেচাকেনা নেই
*লোভী ব্যবসায়ীদের শাস্তি দাবি
বাঙালির রসনাবিলাসের অন্যতম উপকরণ পেঁয়াজ নিয়ে কুমিল্লায় ‘পেঁয়াজমাতি’ চলছেই।  ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করছে বলে গত মঙ্গলবার খবর প্রচারের সাথে সাথে কুমিল্লায় পেঁয়াজের দাম এক লাফে ২-৩ গুণ বেড়ে যায়। মাত্র ৩ দিনের ব্যবধানে দুই দেশের কূটনৈতিক তৎপরতায় অবশেষে ভারত আগের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি খুলে দেয়। স্থলবন্দরগুলোয় আটকে থাকা ২০০ ট্রাক পেঁয়াজ ইতিমধ্যে বাংলাদেশে প্রবেশও করে। পাশাপাশি মিয়ানমার থেকেও ৪৫ টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। কিন্তু আগের দামে ফিরছে না পেঁয়াজের বাজার। কোনো কিছুতেই লাগাম টানা যাচ্ছে না কুমিল্লার পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের লোভের রসনায়।
এখনও কুমিল্লা মহানগরীসহ বিভিন্ন উপজেলার হাট-বাজারগুলোতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫-৬৮ টাকায়। আড়ত ও পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকায়। অথচ ভারতের রপ্তানি বন্ধের ঘোষণার আগে এই পেঁয়াজ কুমিল্লায় পাইকারি মিলত ৪০-৪৫ টাকায় আর খুচরায় মিলত ৫০-৫৫ টাকায়। বারবার পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের এই সীমাহীন লোভের আগুনে পুড়ে কুমিল্লাবাসী আজ ক্ষোভে জ¦লছেন। লোভী ব্যবসায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেখার জন্য তারা আজ মরিয়া হয়ে প্রশাসনের মুখের দিকে তাকিয়ে আছেন।
কুমিল্লা মহানগরীর রাজগঞ্জ বাজারের ক্রেতা লিটন পাল জানান- গত ১৪ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দেয়। ওই দিন থেকেই বাংলাদেশের হাট-বাজার-দোকানপাটে পেঁয়াজের দাম প্রায় দ্বিগুণ, পরদিন প্রায় তিনগুণ হয়ে যায়। তখন আড়ত, পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ পেঁয়াজ মজুত থাকার খবরও সংবাদ মাধ্যমে জানতে পারি। অথচ আজ (রবিবার) আমাকে রাজগঞ্জ বাজার থেকে ৬৮ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনতে হয়েছে, যা অত্যন্ত দুঃখজনক। ওইসব অতিমুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের কঠোর নজরদারির দাবি জানাই।
এদিকে, কুমিল্লা মহানগরীসহ বিভিন্ন উপজেলার হাট-বাজারগুলো ঘুরে দেখা গেছে, পেঁয়াজ-বাজারে ক্রেতা সমাগম কম। অন্যান্য যেকোনো সময়ের তুলনায় পেঁয়াজ-বাজারে ক্রেতা নেই বললেই চলে।
চান্দিনা বাজারের ক্রেতা জুয়েল গতকাল রবিবার কুমিল্লার কাগজের কাছে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, রপ্তানি বন্ধের ঘোষণায় দাম দ্বিগুণ, অথচ আমদানি শুরুর পর দাম আর কমছে নাÑ এটা কোন ধরনের ব্যবসা? এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। এখনও প্রতিটি গুদামে এবং বিক্রেতাদের কাছে ১৪ সেপ্টেম্বরের আগের পেঁয়াজ মজুদ আছে। কিন্তু বিক্রেতারা দাম বাড়িয়েই রাখছেন।  পেঁয়াজের খুব প্রয়োজন হওয়ায় আজ আমি ৬৫ টাকা দরে ১ কেজি পেঁয়াজ কিনেছি।  পেঁয়াজ ব্যবসায়ী আব্দুল গফুরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যেখানে প্রতিদিন ১৫-২০ বস্তা পেঁয়াজ বিক্রি করতাম, এখন দিনে ২ বস্তা পেঁয়াজ বিক্রি করাও সম্ভব হচ্ছে না।  পেঁয়াজের দাম কমবে আশায় মানুষ প্রয়োজনের বেশি  পেঁয়াজ কিনছে না।
চান্দিনা-দেবীদ্বার অঞ্চলের পেঁয়াজের বড় আড়ৎ মহাসড়ক সংলগ্ন কাঠেরপুলের হিমেল স্টোরের পরিচালক নজরুল ইসলাম বললেন, পেঁয়াজ বাংলাদেশে প্রবেশ করলেও আমাদের কাছে এখনও এসে পৌঁছেনি। আগের কেনা পেঁয়াজ এখনও বিক্রি করছি। তবে ক্রেতা নেই। যেখানে প্রতিদিন ৩শ-৫শ বস্তা পেঁয়াজ বিক্রি করতাম, এখন সারাদিনে ৫০ বস্তাও বিক্রি করা যাচ্ছে না। পেঁয়াজের দাম পড়ে যাবে এমন সম্ভাবনায় খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা বেশি পেঁয়াজ কিনতে চাইছেন না।







© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};