ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
202
শোকের মাস
Published : Sunday, 9 August, 2020 at 12:00 AM, Update: 09.08.2020 1:58:39 AM
শোকের মাসবিশেষ প্রতিনিধি : শোকের মাস আগস্টের প্রতিটি দিন, প্রতিটি ণে বাঙালী জাতি নানা অনুষ্ঠানমালার মাধ্যমে ঘৃণা ও ধিক্কার জানাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর খুনী ও তাদের মদদাতাদের। বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করে নানা সেøাগানে লেখা শোকের পোস্টার, ফেস্টুন, ব্যানারে ছেয়ে গেছে রাজধানী থেকে শুরু করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে। বাঙালী জাতির বেদনাবিধুর শোকের মাস আগস্টের আজ নবম দিন।
আগস্ট এলেই তাই কাঁদে বাঙালী। বাঙালীর মন খারাপের মাস এটি। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রতিটি বাঙালীর হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু চিরঞ্জীব। এ-প্রান্ত থেকে সে-প্রান্ত, এ ঘর থেকে সে-ঘর, সবখানে, সর্বত্র, সমানভাবে জুড়ে রয়েছেন তিনি আজও। শাহাদাতের ৪৫ বছর পরও, আজও, আলোয়-উদ্ভাসনে, সঙ্কটে ও সম্ভাবনায়, বাঙালীর চিরমানসপটে চির সমুজ্জ্বল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু। কারণ তিনিই তো বাঙালীর শত-সহস্র বছরের অবিস্মরণীয় এক রাজনৈতিক নেতা, বাঙালীর জাতির পিতা।
তাই আগস্ট এলেই বুকের ভেতরটা হাহাকার করে ওঠে। গোমড়া মুখ গিয়ে থমকে দাঁড়ায়। মন খারাপ হয় বিকেলের। বেদনায় হাঁটে মানুষ। ভাসে শোকে। গুমরে কেঁদে ওঠে ধানম-ির বাড়িটা। সে কান্না বাতাসে ছড়ায় আগুণ। জ্বলে শহর। যুথবদ্ধ হয় মানুষ। ভালবাসার নৈবেদ্য দেন পিতাকে। সম্মিলিত কণ্ঠে শপথ নেন এক অসাম্প্রদায়িক বাংলা গড়তে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের শোষণ-বঞ্চনা, ুধা-দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা বিনির্মাণে।
এই আগস্টেই মতালোভী নরপিশাচরা সপরিবারে হত্যা করে জাতির জনককে। বাঙালীর থেকে চিরতরে মুছে দিতে শেষবারের জন্যও দেখতে দেয়নি মুখগুলো। দাফন করা হয়েছে কড়া প্রহরায়, অবহেলায়, অশ্রদ্ধায়। তারপর চলেছে কত ষড়যন্ত্র, ঘৃণ্য রাজনীতি। বিকৃত করা হয়েছে স্বাধীনতার ইতিহাস, বঙ্গবন্ধুর অপরিসীম অবদান। তবুও শেষ রা হয়নি। কৃতজ্ঞ বাঙালী ভোলেনি সে মুখ, কণ্ঠ, আদল। সঙ্কটে ও বিপন্নতায়, বিশৃঙ্খলা ও অনাহারে, রাজনীতি ও সমাজের ভাঙ্গনে- এখনও তাই বাঙালী ফিরে যায় তারই কাছে। হাঁটে বঙ্গবন্ধুরই দেখানো পথে।
আর এ কারণেই তো স্বাধীনতার চার যুগ পরেও দেশের নানা স্থানেই যখন বেজে ওঠে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ঘোষণা সম্বলিত সেই বর্জনির্ঘোষ ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ, তখনই নতুন করে শিহরিত হয়ে ওঠে বাঙালী। রক্তে জ্বলে ওঠে বঙ্গবন্ধুর দেয়া স্বাধীনতা রায় যে কোন ত্যাগ স্বীকারের মন্ত্র। স্বাধীনতা বিরোধী ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ লড়াই করার প্রেরণা জোগায়।
ইতিহাসে হয়ত এ মাসে অনেক বিজয়ের কাহিনী লেখা আছে। কিন্তু বিজয়ের সেসব কাহিনী রক্তের স্রোতধারায় মিশেছে আগস্টে এসে। এ মাস নতুন করে ভাবতে শেখায়। এ মাস প্রতিশোধের চেতনায় শানিত করে করে সবাইকে। কেননা এ মাসেই আমরা হারিয়েছি ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ বাঙালী কালজয়ী মহাপুরুষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।
বস্তুত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন ইতিহাসের বাকঘোরানো এক সিংহ পুরুষ। বাঙালী জাতির চরিত্র সম্পর্কে তাঁর চেয়ে বোধকরি আর কেউ জানতেন না। তবুও তিনি জীবনের বিনিময়ে সেই জাতির জন্যই রচনা করেন ইতিহাসের এক অমোঘ অধ্যায়। পৃথিবীতে কোন জাতিই মাত্র ৯ মাসে স্বাধীনতা লাভ করতে পারেনি। আর স্বাধীনতার জন্য এই স্বল্পতম সময়ে প্রায় ত্রিশ লাখ বাঙালীর আত্মদানের ঘটনাও ইতিহাসে বিরল।
বঙ্গবন্ধুর এক তেজোদীপ্ত ভাষণেই উদ্বুদ্ধ গোটা জাতি সেই বহু কাক্সিত স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনেন। বঙ্গবন্ধু ছিলেন স্বভাব নেতা। কী বাল্যে, কী কৈশোরে বা কী মত্ত যৌবনে সবখানেই ছিলেন তিনি এক কালজয়ী মহাপুরুষ। বঙ্গবন্ধু বাঙালী জাতির ইতিহাসের এক অবিভাজ্য সত্তা। আর সে জন্যই আগস্টের পুরো মাসজুড়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করছেন জাতির জনকের প্রতি।









© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};