ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
571
কুমিল্লা মেডিক্যালে ১১ দিনে ৬৭ জনের মৃত্যু
Published : Monday, 6 July, 2020 at 12:00 AM, Update: 06.07.2020 1:13:20 AM
কুমিল্লা মেডিক্যালে ১১ দিনে ৬৭ জনের মৃত্যু নিজস্ব প্রতিবেদক।। শেষ ২৪ ঘন্টায় ৫ জনসহ কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতালে করোনার সংক্রমণে ও লক্ষণ-উপসর্গ নিয়ে গত ১১ দিনে অন্তত ৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত সময়ে হাসপাতালের আইসিইউ এবং আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এসব প্রাণহাণির ঘটনা ঘটে। কুমেক হাসপাতালের কোভিড ইউনিট সূত্রে এ নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ দিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতালে কেন প্রতিদিন গড়ে ৬/৭ জনের মৃত্যু হচ্ছে তা নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। মৃতদের করোনা পরীক্ষা অনেক সময় করোনা নেগেটিভও আসছে। ফলে করোনা না হওয়ার পরও কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়াও কতোটুকু সঠিক তা খতিয়ে দেখার সময় হয়েছে বলে মনে করেন অনেকে।
 এ ব্যাপারে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখতে আমিও বলেছি। কারণ এটি এক সময় গবেষণার বিষয়ও হবে। তিনি জানান, কুমিল্লার কোন প্রাইভেট কিনিকে এখন মৃত্যুর ঘটনা নেই। শ্বাসকষ্টের রোগীর মৃত্যুর মুহুর্তে রোগীকে কুমিল্লা মেডিক্যালে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। মেডিক্যালে আনার পর মারা যাচ্ছে। এগুলো যুক্ত হচ্ছে মৃত্যুর তালিকায়।
জানা গেছে, গত ২৪ ঘন্টায় (৫ জুলাই) কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনায় কেউ মারা না গেলেও উপসর্গ নিয়ে ৫ জনের প্রাণহানী ঘটেছে। তাদের মধ্যে চারজন পুরুষ ও একজন নারী। মারা যাওয়াদের মধ্যে দুইজন আইসিইউতে, দুইজন আইসোলেশনে এবং বাকি একজন করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। হাসপাতালে দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। সূত্র জানান, কুমিল্লা জেলায় করোনা চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসাসেবা প্রতিষ্ঠান কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রবিবার (৫ জুলাই) করোনা উপসর্গ নিয়ে ৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন, কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার নাজিরা বাজার এলাকার মৃত আবুল হাসেমের মেয়ে নূরজাহান বেগম (৮০), একই উপজেলার মৃত হাজী বাক্স আলীর ছেলে নুরুজ্জামান (৮৮), নাঙ্গলকোট উপজেলার মৃত কবির মাহমুদের ছেলে আবদুল হালিম (৬৮), ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর এলাকার আবদুল মজিদের ছেলে মোশাররফ হোসাইন (৫৩), ও চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার আবদুর রশিদের ছেলে টিপু সুলতান (৪৬)। আবদুল হালিম ও টিপু সুলতান আইসিইউ, মোশাররফ হোসাইন ও নূরজাহান বেগম আইসলোশানে এবং নুরুজ্জামান করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন বলে জানা যায়।  কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন করোনা উপসর্গে ৫ জন মৃত্যুবরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এসময় নতুন কেউ করোনায় মারা যাননি বলে তিনি জানান।
আগের দিন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালের কভিড-১৯ ইউনিটে করোনার সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে ২৪ ঘন্টায় দুই নারীসহ আরো ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে শনিবার (৪ জুলাই) সকাল পর্যন্ত সময়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ ৭ জন মারা যান। মৃত ৭ জনের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। আর উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া বাকি ৬ জনের মধ্যে দুইজন নারী এবং চারজন পুরুষ।’
কুমেকের কভিড-১৯ ইউনিটের তথ্য কেন্দ্র থেকে জানাযায়, হাসপাতালে মারা যাওয়া ৭ জনের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন বরুড়া উপজেলার শাহ আলম (৬২)। উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ৬ জন হলেন, কুমিল্লা সদর উপজেলার আবদুল কাদের (৬০), ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার আবদুল করিম (৭৫), মনোহরগঞ্জ উপজেলার জামাল উদ্দিন (৫৩), চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার বাসু দেব (৭২), একই জেলার শাহারাস্তি উপজেলার নাজমা রহমান (৫০) এবং গোপালগঞ্জ জেলার মোখশেদপুর উপজেলার লুৎফর নেছা (৬২)।
এছাড়াও এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ জুলাই ৮ জন, ২ জুলাই ৮ জন, ১ জুলাই ৭ জন, ৩০ জুন ৪ জন, ২৯ জুন (সোমবার) ৭ জন, ২৮ জুন (রবিবার) ৬ জন, ২৭ জুন (শনিবার) ৪ জন, ২৬ জুন (শুক্রবার) ৪ জন এবং ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) ৭ জন মারা যান। কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রতিদিনই করোনার লক্ষণ-উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লা ও আশপাশের জেলা থেকে রোগীরা এসে ভর্তি হচ্ছেন।
আগের দিন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালের কভিড-১৯ ইউনিটে করোনার সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে ২৪ ঘন্টায় দুই নারীসহ আরো ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে শনিবার (৪ জুলাই) সকাল পর্যন্ত সময়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ ৭ জন মারা যান। মৃত ৭ জনের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। আর উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া বাকি ৬ জনের মধ্যে দুইজন নারী এবং চারজন পুরুষ।’
কুমেকের কভিড-১৯ ইউনিটের তথ্য কেন্দ্র থেকে জানাযায়, হাসপাতালে মারা যাওয়া ৭ জনের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন বরুড়া উপজেলার শাহ আলম (৬২)। উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ৬ জন হলেন, কুমিল্লা সদর উপজেলার আবদুল কাদের (৬০), ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার আবদুল করিম (৭৫), মনোহরগঞ্জ উপজেলার জামাল উদ্দিন (৫৩), চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার বাসু দেব (৭২), একই জেলার শাহারাস্তি উপজেলার নাজমা রহমান (৫০) এবং গোপালগঞ্জ জেলার মোখশেদপুর উপজেলার লুৎফর নেছা (৬২)।
এছাড়াও এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ জুলাই ৮ জন, ২ জুলাই ৮ জন, ১ জুলাই ৭ জন, ৩০ জুন ৪ জন, ২৯ জুন (সোমবার) ৭ জন, ২৮ জুন (রবিবার) ৬ জন, ২৭ জুন (শনিবার) ৪ জন, ২৬ জুন (শুক্রবার) ৪ জন এবং ২৫ জুন (বৃহস্পতিবার) ৭ জন মারা যান। কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রতিদিনই করোনার লক্ষণ-উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লা ও আশপাশের জেলা থেকে রোগীরা এসে ভর্তি হচ্ছেন।





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};