ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
8191
করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে শহর কুমিল্লায়
একদিনে জেলায় শনাক্ত শতাধিক রোগী, নগরীতে আক্রান্ত ৩৬
Published : Sunday, 31 May, 2020 at 11:17 PM
করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে শহর কুমিল্লায়জহির শান্ত: কুমিল্লা শহরের কমিউনিটিতে ছড়িয়ে পড়েছে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। প্রতিদিনই শহরের বিভিন্ন এলাকায় শনাক্ত হচ্ছে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী। আর এ সংখ্যা দিনদিন বেড়েই চলেছে।

সর্বশেষ গতকাল কুমিল্লা সিটিকর্পোরেশন এলাকায় সর্বোচ্চ ৩৬জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদিন পুরো জেলাজুড়েও সংক্রমিত হয়েছেন সর্বোচ্চসংখ্যক ১০৪জন। একই সময়ে জেলায় মারা গেছেন দু’জন। এছাড়া করোনা-উপসর্গ নিয়েও মৃত্যু হয়েছে আরো দু’জনের।

মহামারী এ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর গতকালই (৩১ মে, রোববার) প্রথম একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা এক শ ছাড়ালো এ জেলায়। এর আগে গত ২৪ মে কুমিল্লায় সর্বোচ্চ ৮১ জনের শরীরে কোভিড-১৯ সংক্রমণের তথ্য দেয় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। সেদিন নগরীতে আক্রান্ত হয়েছিলেন ১১জন।

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে শহর কুমিল্লায়এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৯৭৬ জনে।  এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩১ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১২৫ জন।
এদিকে গেলো ২৪ ঘন্টায় কুমিল্লায় করোনা আক্রান্ত হয়ে যে দুই জন মারা গেছেন তাদের একজনের বাড়ি নগরীর সরকারি মহিলা কলেজ গেইট সংলগ্ন। অপর জনের বাড়ি জেলার লালমাই উপজেলায়।

একই সময়ে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান কুমিল্লা সাকির্ট হাউসের এক কর্মচারী। তার বাড়ি বুড়িচং উপজেলায়। এছাড়াও এদিন নাজিরা বাজার এলাকায় বসবাসরত এক ব্যক্তিও উপসর্গ নিয়ে মারা যান বলে জানা গেছে। 

অপরদিকে, কুমিল্লা সিটিতে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক যে ৩৬ জনের করোনা সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছে এর মধ্যে তিনজন চিকিৎসকও রয়েছেন। দুই পরিবারের ৬ জন করে ১২ জন আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে। মাত্র এক বছর বয়সী এক শিশু আক্রান্ত আছেন এদের মধ্যে। কুমিল্লা জেলায় ৩১ মে সংক্রমন শনাক্তের বেশির ভাগই শহর এলাকার। এ নিয়ে কুমিল্লা জেলায় ৯৭৫ জনের করোনা সংক্রমণ সনাক্ত হলো। কুমিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এপর্যন্ত কুমিল্লা শহরের করোনাভাইরাসে সংক্রমিত এলাকাগুলো হল- সিটি কর্পোরেশন এলাকার কান্দিরপাড়, রাজগঞ্জ, অশোকতলা, নানুয়া দিঘীর পাড়, হাউজিং এস্টেট, দক্ষিণ চর্থা, বিষ্ণপুর, ছোটরা, ঝাউতলা, নেউরা, চকবাজার, মধ্যম আশ্রাফপুর, পুরাতন মৌলভীপাড়া, শাসনগাছা, তালপুকুর পাড়, রেইসকোর্স, নুরপুর, জিলা স্কুল রোড, লাকসাম রোড দক্ষিণ চর্থা, চম্পকনগর, বার পাড়া। এছাড়া কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুমিল্লা সদর হাসপাতালে প্রতিনিয়ত চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী ও রোগীরা নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে। এছাড়া শহরের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালেরও একই দশা।

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে শহর কুমিল্লায়কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন মো. সাহাদাত হোসেন বলেন, ‘প্রতিদিনই কুমিল্লার বিভিন্ন উপজেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গেলো ক’দিনের শনাক্তের সংখ্যায় দেখা যাচ্ছে, কুমিল্লা নগরীতেও কোভিড-১৯ সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। কমিউনিটিতে এটি সংক্রমিত হওয়ার কারণে শনাক্তের সংখ্যাও বাড়ছে।’
তাঁর শঙ্কা, ‘স্বাস্থ্যবিধি না মানলে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।’

গতকাল রবিবার কুমিল্লা শহরের সর্বশেষ তথ্যে জানা গেছে, কুমিল্লা শহরের ঝাউতলা ও লাকসাম রোড দক্ষিণ চর্থা মাদ্রাসা গলির দুই পরিবারের ৬ জন করে ১২ জন আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। এর মধ্যে শহরের লাকসাম রোডের মাদ্রাসা গলির বাসিন্দা কাশেমুল উলুম মাদ্রাসার এক শিক্ষকের মা-সহ পরিবারের ৬ জন আক্রান্ত হয়েছে।

তিনি টমসনব্রিজ কবরস্থানেও দায়িত্বে আছেন। শহরের তালপুকুর পাড়ের এক নারী ও একই এলাকায় বসবাসকারী এ নিউরো সার্জন, রেইসকোর্স কাঠেরপুল এলাকায় বসবাসকারী ডেলটা ফার্মার এরিয়ার ম্যানেজার এক বছরের কন্যা শিশু, স্ত্রীসহ আক্রান্ত হয়েছেন। ডেল্টার এরিয়া ম্যানেজারের ৭ বছরের আরেক সন্তানের নমুনার ফল নেগেটিভ এসেছে।

শহরের জিলা স্কুল রোডের একজন ও নুরপুরের দুইজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চাকুরিরত ৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে তিনজন ছোটরায়, একজন টমসনব্রিজে আরেকজন বালুরচরে বসাবাস করেন। শহরের ঝাউতলাস্থ শেল টাওয়ারের আরেক চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দুইজন। শহরের কান্দিরপাড়ের একজন, গোলাম মোস্তফা সড়কের একজন চিকিৎসক, হযরতপাড়ার একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কুমিল্লা সিএমএইচের কোয়াটারের দুইজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

কুমিল্লা সদর উপজেলার বারপাড়া ও চম্পকনগর হালিমানগরের একজন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে শহর কুমিল্লায়কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের তিন চিকিৎসক, দুই নার্স ও ৬ রোগীর করোনা সংক্রমণ সনাক্ত হয়েছে। রোগীদের একজনের বাড়ি শহরের বজ্রপুরের, আরেকজনের বাড়ি শহরের কুচাইতলীতে। এরা আগেই বাড়ি চলে গেছেন।
কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসাধীন নাজিরা বাজারের আবুল কাশেম (৪০) সকালে মারা গেছেন। তার করোনার লক্ষণ উপসর্গ ছিলো। তিনি নমুনা পরীক্ষা করে ভালো অনুভব করা বাড়ি চলে যেতে চাওয়ার ১০ মিনিট পরই মারা যান।
তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী। সেখানেই তাকে দাফনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানান কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান।
অপর দিকে ৩০ মে রাত সাড়ে ৮টায় করোনার লক্ষণ উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন কুমিল্লা সার্কিট হাউসের কর্মচারী রেজাউল করিম। তিনি শহরের লাকসাম রোডের মডার্ণ হাসপাতালের কাছে থাকতেন। সকাল ৭টায় বুড়িচংয়ের বাকশিমুল গ্রামে তাকে দাফন করা হয়।

জানা গেছে, কুমিল্লা শহরের সরকারি মহিলা কলেজ গেইটের বাসিন্দা, মহানগর যুবদল নেতা মমিন আহমেদ রনির মা আখতার জাহান জোৎস্না (৬২) কুমিল্লার ফোরটিস হাসপাতালে সকাল ৭টায় মারা গেছেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন । শনিবার সন্ধ্যায় তাকে ঐ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। হাসপাতালের সুপারেন্ডেন্ট ডা. রাসেল আহমেদ চৌধুরী তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে আরো জানা গেছে, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এলাকার ৩৬ জন ছাড়াও গত ২৪ ঘন্টায় জেলার দেবীদ্বারে ২১ জন, লাকসামে ১৭ জন, নাঙ্গলকোটে ৯ জন, চৌদ্দগ্রামে ৬ জন, মনোহরগঞ্জে ৪জন, বরুড়াতে ৪ জন, হোমনায় ৩জন, মেঘনাতে ১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ৩জনের রিপোর্টও পজেটিভ এসেছে।

এদিকে করোনা আক্রান্ত মারা যাওয়া কুমিল্লা নগরীর সরকারি মহিলা কলেজ সড়ক এলাকার বাসিন্দার জানাজা ও দাফন কার্য সম্পন্ন করে মানবিক সংগঠন ‘বিবেক’। এর আগেও নগরীতে করোনা আক্রান্ত হয়ে অথবা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের দাফনও এ সংগঠনের সদস্যরাই করেছিলো।

জানতেই চাইলে ‘বিবেক’ এর প্রতিষ্ঠাতা ও কুমিল্লা মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ মোল্লা টিপু জানান, ‘বেলা ১১ টার দিকে ‘বিবেক’ এর সদস্যরা নগরীর ফোরটিস থেকে মরদেহ গ্রহণ করে। পরে কোভিড স্বাস্থ্য বিধি মেনে বেলা ১২ টার দিকে কুমিল্লা শহরের টমসনব্রিজ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।’






© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};