ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
4726
দেবিদ্বারে করোনা আক্রান্তদের দায়িত্ব নিলেন ডা. ফেরদৌস
Published : Thursday, 14 May, 2020 at 7:11 PM, Update: 15.05.2020 11:31:15 AM
দেবিদ্বারে করোনা আক্রান্তদের দায়িত্ব নিলেন ডা. ফেরদৌস শাহীন আলম, দেবিদ্বার।
মহামারিতে রুপ নেওয়া মরণঘাতি করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ পাল্লা দিয়েই বাড়ছে। কুমিল্লার দেবিদ্বারেও আশংকাজনক হারে বেড়েই চলেছে এর সংখ্যা। এ উপজেলায় শনাক্তদের মধ্যে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। একদিনে সর্বোচ্চ ১৯জনসহ মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬১ জন। কয়েকটি গ্রাম হটস্পট হিসেবে ঘোষণা করেছে  স্থানীয় প্রশাসন। শনাক্তদের মধ্যে রয়েছেন ব্যবসায়ী, পুলিশ, ডাক্তার, সাংবাদিকসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে দেবিদ্বার উপজেলা করোনা শনাক্ত হওয়া রোগীদের চিকিৎসাসহ যাবতীয় দায়িত্ব নিয়েছেন নিউইয়র্কের খ্যাতিমান মেডিসিন বিশেষজ্ঞ দেবিদ্বারের কৃতিসন্তান ডা. ফেরদৌস খন্দকার। করোনা শনাক্তদের নিজ খরচে চিকিৎসা, জরুরি খাদ্য সরবরাহ, চিকিৎসা সুরা সামগ্রী প্রদান, নগদ অর্থ দান, আক্রান্তরা যেন অমানবিক বৈষম্যের স্বীকার না হোন তা সচেতনতা বৃদ্ধি এবং মৃতদের দাফন কাফনের ব্যবস্থা করাসহ যাবতীয় দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি।
দেবিদ্বার উপজেলার গুণাইঘর উত্তর ইউপি’র বাকসার গ্রামে তার জন্ম। বাবা ফয়েজ আহমেদ খন্দকার ছিলেন বিমান বাহিনীর (অব:) কর্মকর্তা। ডা. ফেরদৌস খন্দকার বর্তমানে স্ত্রী ও দুই ছেলে নিয়ে নিউইয়র্কে থাকেন। তবে প্রায়ই তিনি বাংলাদেশে আসেন। যখনই তিনি বাংলাদেশে আসেন নিজ এলাকায় যেতে একেবারেই ভোলেন না। বরং দেবিদ্বারের মানুষের সেবায় তিনি অনেক আগে থেকেই তিনি নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। নিজ গ্রাম বাকশারে প্রতিষ্ঠা করেছেন ফয়জুননেসা ফাউন্ডেশন। ওই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে তিনি শিা, স্বাস্থ্য, নারীর মতায়নসহ বিভিন্ন েেত্র কাজ করে যাচ্ছেন। করোনার এই সময়টায় তিনি নিজ এলাকার ছয় হাজার পরিবারকে দেড় মাসের জন্যে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। করোনায় সংক্রমিত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। সেই সাথে মাস্ক, গ্লাভসসহ সুরা সামগ্রী দিয়েছেন। করোনা মহামারীর এই সময়ে তিনি কেবল নিউইয়র্কে নয়, দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশের মানুষের পাশেও। যেখানে চাইলেও এখন বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো অনেক কঠিন সেখানে সব বিপদ ও ঝুঁকি মাথায় নিয়েই বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে গেছেন মাউন্ট সিনাই হাসপাতালের এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। এমনকি নিউইয়র্কে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পর্যন্ত চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। যা অসংখ্য মানুষের মনোবলকে চাঙা করেছে। নিউইয়ার্ক কমিউনিটিতে তৈরি হয়েছে এক ধরণের আস্থার পরিবেশ। পৃথিবীতে এখন সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে যুক্তরাষ্ট্রে। তার মধ্যে অর্ধেকই আবার নিউইয়র্কে। সেই কঠিন পরিস্থিতেও সেখানে করোনা রোগীদের বাতিঘর হিসেবে কাজ করছেন দেবিদ্বারের কৃতিসন্তান ডা. ফেরদৌস খন্দকার। নিউইয়র্কে তার রয়েছে তিনটি ব্যক্তিগত অফিস। এর মধ্যে জ্যাকসন হাইটসের ওয়েস্টার্ন কেয়ার এর ১৫ সদস্যদের দল নিয়ে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরুর প্রায় দশদিন অফিস খোলা রেখেই চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে গেছেন ডা. ফেরদৌস খন্দকার।
ডা. ফেরদৌস খন্দকার বলেন, বৈশি^ক এ মহামারিতে নিউইয়ার্কে অবস্থানরত বিশে^র নানা শ্রেণী পেশার মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে করোনা যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছি। নিজের জন্মভূমির মানুষই আজ ভালো নেই। এখবরটি আমাকে খুব কষ্ট দিচ্ছে। মন পড়ে আছে আমার জন্মভূমির মানুষের জন্য। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আমার জন্মস্থানে যত মানুষ করোনা পজেটিভ আক্রান্ত হবে আমি তাদের পাশে দাঁড়াবো। বিভিন্ন চিকিৎসা, পরামর্শ, খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, কেউ মারা গেলে তাদের লাশ দাফন কাফনের ব্যবস্থা করাসহ তাদের চিকিৎসার যত টাকা পয়সা ব্যয় হবে আমি চেষ্টা করব তাদের পাশে দাঁড়াতে।  তিনি আরও বলেন, আমি ইতোমধ্যে করোনা আক্রান্তদের ফোন নম্বর  ঠিকানা সংগ্রহ করেছি। আমি তাদের প্রত্যোকের সাথে যোগাযোগ রাখছি। তাদের বিভিন্ন পরামর্শসহ বিভিন্ন সহায়তার আশ^াস দিয়েছি। কারও কাছে নগদ অর্থসহ বিভিন্ন সহযোগিতা পাঠানোর চেষ্টা করছি।     






সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};