ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
409
কুমিল্লায় সালিশ বৈঠকে এক পরিবারকে সামাজিকভাবে বয়কট; থানায় জিডি
Published : Thursday, 5 December, 2019 at 12:00 AM
বশিরুল ইসলাম: কুমিল্লা মহানগরীর ২৭নং ওয়ার্ডে গ্রাম্য সালিশ বৈঠকে রোস্তম আলী নামে এক ব্যক্তির পরিবারকে সামাজিকভাবে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ১ ডিসেম্বর রবিবার ওয়ার্ডের রায়পুর গ্রামের বারেক মিয়ার দোকানে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।রোস্তম আলী রায়পুর গ্রামের মো. চেরাগ আলীর পুত্র।
বৈঠকে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: আবুল হাসানসহ এলাকার সর্দার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে। এ ঘটনার পর দিন ২ ডিসেম্বর সদর দক্ষিণ মডেল থানায় নিরাপত্তা চেয়ে একটি জিডি করেছেন সামাজিকভাবে বয়কট হওয়া রোস্তম আলী। জিডি নং-৯২।
রোস্তম আলী অভিযোগ করেন, ওইদিনের বৈঠকে আমার কিংবা আমার পরিবারের কোনো বিষয় জড়িত ছিলো না। আলী নেওয়াজ ও ফজলু মিয়ার বিরোধের জেরে ডাকা বৈঠকে হঠাৎ করে সিদ্ধান্ত নিয়ে আমাকে এলাকাচ্যুত করা হয়েছে। এরপর থেকেই আমি ও আমার পরিবার বাড়ি ছাড়া।
ওইদিনের সালিশ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় অহিদুর রহমান। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সালিশের ডাক পেয়ে সেখানে উপস্থিত হই। কিন্তু বৈঠকে রোস্তম আলীর পক্ষের কেউ ছিল না। পরে এক পর্যায়ে রোস্তম আলীকে সমাজ থেকে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গ্রামে তার প্রবেশ করা নিষেধ। তবে যাদের বিরোধের জের ধরে বৈঠক ডাকা হয়েছিলো সেই ফজলু কিংবা আলী নেওয়াজÑ কারোরই কোনো বক্তব্য নেয়া হয়নি। শুধু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে রোস্তমের বিরুদ্ধে।
বৈঠকে উপস্থিত একই গ্রামের মৃত আলী আশ্রাফের ছেলে আবুল কাশেম মোহন মিয়া জানান, রোস্তম আলীর পরিবারের সদস্যদের সামাজিকভাবে বসার জন্য ডাকা হয়েছিল কিন্তু পরিবারের লোকজন উপস্থিত না হওয়ায় সমাজকে অমান্য করায় সামাজিকভাবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে রোস্তম আলী মামলাবাজ প্রকৃতির লোক।
মৃত আলী আজমের ছেলে কাদের মিয়া জানান, আমিও ঐদিন সালিশ বৈঠকে উপস্থিত ছিলাম। সেদিন রোস্তম আলী মিয়া বা তার ছেলেরা কেউ সালিশে উপস্থিত ছিলনা। সেদিন কাউন্সিলর সাহেব আমাদের কাছ থেকে তার অফিসের সাদা পেডে স্বাক্ষর নিয়েছে। উপস্থিত সকলে স্বাক্ষর দিয়েছি। সাদা কাগজে কিছু লিখা ছিলনা।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিল মো: আবুল হাসান জানান, সামাজিকভাবে গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সর্দার-মাতব্বরদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে সকলের সম্মতিক্রমেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সেদিন আমরা যে বিষয়টি নিয়ে বসেছিলাম- তা সমাধান হয়েছে। কিন্তু রোস্তম আলীর বড় ছেলে মোস্তফা সালিশ বৈঠকের শেষে এসে সমাজের লোকদের সাথে খারাপ ব্যবহার করায় সামাজিকভাবে তাকে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
থানায় নিরাপত্তা চেয়ে জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, হামলা কিংবা হুমকি-ধমকির জিডির ক্ষেত্রে তদন্তের জন্য কোর্টের অনুমতি লাগে। আদালত যদি তদন্তের প্রয়োজন মনে করেন আমাদের অনুমতি দিবেন। আমরা জিডির বিষয়টি আদালতে অবহিত করেছি। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।








© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};