ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
292
কুমিল্লার শমীর চন্দ্র চন্দ বাংলাদেশ কৃষকলীগের সভাপতি নির্বাচিত
Published : Thursday, 7 November, 2019 at 12:00 AM, Update: 07.11.2019 1:57:31 AM
কুমিল্লার শমীর চন্দ্র চন্দ বাংলাদেশ কৃষকলীগের সভাপতি নির্বাচিত স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লার কৃতী সন্তান, শহরের কান্দিরপাড়ের বাসিন্দা শমীর চন্দ্র চন্দ বাংলাদেশ কৃষকলীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। কুমিল্লার কান্দিরপাড় পূবালী চত্বরে অবস্থিত পিপাসা মিষ্টি দোকানের মালিক প্রয়াত সুখেন্দ কুমার চন্দের ছোট ছেলে তিনি। কুমিল্লা জিলা স্কুল থেকে ১৯৮১ সালে এসএসসি এবং ১৯৮৩ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে এইচএসসি পাশের পর তিনি পড়াশুনার জন্য ঢাকায় চলে যান এবং সেখানেই বসবাস শুরু করেন। কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন উম্মে কুলসুম স্মৃতি। শমীর চন্দ্র চন্দ ও উম্মে কুলসুম স্মৃতি দুজনেই কৃষকলীগের যুগ্মসম্পাদক ছিলেন।
শমীর চন্দ্র চন্দ তিন ভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট। তার দুই বড়ভাই হচ্ছেন দীপক চন্দ্র চন্দ ও প্রদীপ চন্দ্র চন্দ। তার ছয় বোনের মধ্যে সবচেয়ে ছোট বোন বীনা চন্দ্র চন্দ কুমিল্লার আওয়ামীলীগ নেতা পাপন পালে স্ত্রী।
শিক্ষা জীবনে তিনি কুমিল্লা জিলা স্কুল, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ এবং শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। ১৯৮৩ সালে তিনি ছাত্রলীগের সমাজকল্যাণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৮৭ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।
১৯৯১ সালে বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদের আজীবন সদস্য হন এবং ১৯৯২ সালে পরিষদের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং কৃষিবিদ ইনস্টিটিটের আজীবন সদস্যপদ লাভ করেন। ১৯৯৭ সালে তিনি বিপুল ভোটের ব্যাবধানে কৃষিবিদ ইনষ্টিউট ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক পদে জয়লাভ করেন এবং বাংলাদেশ কৃষক লীগের কৃষি উপকরণ বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন।
২০০২ সালে তিনি কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এবং কৃষিবিদ ইনষ্টিটিউটের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। রাজনৈতিক এবং সাংগঠনিক সফলতার ধারাবাহিকতায় তিনি ২০১২ সালে (আগের কমিটির) কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং কৃষিবিদ ইনষ্টিটিউটের পর পর ২ বার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

কৃষিবিদ সমীর চন্দ মানেই বাংলাদেশ কৃষক লীগের সিংহ পুরুষ। বাংলাদেশ কৃষক লীগের শুধু অবদান রাখছেন না এক সময় বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটে(বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়)রাজপথ কাপানো ছাত্রনেতা ও ছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বস্ত এই কৃষিবিদ সমীর চন্দ এক, দুই দিনে তৈরী হয়নি দলের দুঃসময়ে অনেক নির্যাতিত হয়েছে বিএনপি, জামাতের দ্বারা। তিনি তার জীবনের বেশির ভাগ সময়ই রাজনীতিতে কাটিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ কৃষক লীগের সর্বস্তরের জনগন, নেতা-কর্মীদের কাছে প্রিয় মুখ। জননেত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি আন্দোলনে যিনি ঢাকার রাজপথে সম্মুখভাবে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন, তৎকালীন কৃষক লীগ যার নেতৃত্বে রাজপথে প্রকম্পিত করেছিল, সামরিক শক্তিকে উপেক্ষা করে যার স্লোগান কারামুক্তি আন্দোলন বেগবান করতে শক্তি ও সাহস যুগিয়েছিল , পরিচ্ছন্ন রাজনীতির প্রকৃষ্ঠ উদাহারন, প্রতিটি নেতা- কর্মীর হৃদয়ে যার নাম লিখা তিনি হলেন সকলের প্রিয় বাংলাদেশ কৃষক লীগের বিপ্লবী ১নং যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক কৃষিবিদ সমীর চন্দ।
এই মহান নেতার রাজনৈতিক অবস্থান তুলে ধরা হলো: কৃষিবিদ সমীর চন্দ ১৯৮২-৮৩ সেশনে বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটে (বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়) কৃষি বিজ্ঞানে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তি হয়ে ১৯৮৬ সালে (১৯৮৯ সালে অনুষ্ঠিত) কৃতিত্বের সাথে বিএসসি এজি (সম্মান) ডিগ্রি অর্জন করেন। ছাত্র জীবনে তিনি ১৯৮৭-৮৯ মেয়াদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউট (বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়) শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসাবে নির্বাচিত হন এবং সেই সময় ছাত্রদের ন্যায়সংগত অধিকার আদায়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। কৃষিবিদ সমীর চন্দ ১৯৯৬-৯৮ মেয়াদে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ ঢাকা মেট্রোপলিটন এর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে কৃষিবিদদের চাকুরির সংস্থানসহ পেশাগত উৎকর্ষ সাধনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।
তিনি বাংলাদেশ কৃষক লীগের ১৯৯৮-২০০৭ মেয়াদে কৃষি উপকরণ সম্পাদক এবং ২০০৭-২০১২ মেয়াদে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি পেশাজীবী সংগঠন কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ এর ২০০৯-২০১২ মেয়াদে সাংগঠনিক সম্পাদক ও ২০১২-২০১৬ মেয়াদে যুগ্ম মহাসচিব এর দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেন। তিনি ১৯৯০ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদে প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।
কৃষিবিদ সমীর চন্দ ১৯৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, ১৯৯৬ এর ভোটের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেন। তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর জেল, জুলুম অত্যাচার নির্যাতনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তির দাবীতে বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদ, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ এবং কৃষক লীগের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বিবৃতি, মানববন্ধনসহ জোর গণ-আন্দোলন গড়ে তোলায় সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। এছাড়াও তিনি ০৫ জানুয়ারি নির্বাচনের প্রাককালে বিএনপির জ্বালাও-পোড়াও এবং হরতালের দিনগুলোতে তেজগাঁও এর রাজপথে নেতা- কর্মীদের সংগঠিত করে প্রতিবাদ মিছিলে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।
বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ কৃষক লীগের ১নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদ ও শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশন-এর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বর্তমানে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ-এর কার্যনির্বাহী কমিটির একজন সদস্য। কৃষিবিদ সমীর চন্দ বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য সনাতন সমাজকল্যাণ সংঘের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি অত্যন্ত মেধাবী, দৃঢ়চেতা, সৎ এবং আপোষহীন নেতৃত্ব গুনের অধিকারী।





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};