ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
699
তিতাস নদীতে থামছে না বালু উত্তোলন, হুমকিতে বাড়িঘর
Published : Saturday, 2 March, 2019 at 1:57 PM
তিতাস নদীতে থামছে না বালু উত্তোলন, হুমকিতে বাড়িঘর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় তিতাস নদীতে ড্রেজিংয়ের নামে ব্যক্তিমালিকানাধীন তফসিলভুক্ত সম্পত্তি থেকে বালু উত্তোলন করে অবৈধভাবে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। এতে নদীর তীরবর্তী বাড়ির ভিটির মাটি ধসে নদীতে বিলীন হতে চলেছে।

আখাউড়া পৌরশহরের চরনারায়নপুর গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা ও সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ মশিউর রহমান বাবুল জানান, তিতাস নদী খননের কাজটি বাস্তবায়ন করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। খনন কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ নৌ-বাহিনী নারায়নগঞ্জ বন্দর ডকইয়ার্ড এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়াকর্স লিমিটেড।

আখাউড়া অংশে খনন কাজের শুরুতে চরম অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ও তিতাস নদী খনন কাজের বাস্তবায়নে থাকা পানি উন্নয়ন বোর্ডের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

তিতাস নদীতে থামছে না বালু উত্তোলন, হুমকিতে বাড়িঘর ভুক্তভোগী বাসিন্দা মশিউর রহমান বাবুল আরও জানান, তিতাস নদীর তীরবর্তী দেবগ্রাম ও চরনারায়নপুর মৌজাধীন আমার ব্যক্তিমালিকানাধীন তফসিলভুক্ত জমির ভরাট চরের মাটি ও বালি কেটে নিয়ে অন্যত্র বিক্রয় করে দিচ্ছে। এতে তার বাড়িঘরের স্থাপনা নদী গর্ভে ভেঙ্গে বিলীন হচ্ছে। এছাড়াও শান্তিরনগর গ্রামের মসনজিদসহ প্রায় অর্ধশতাধিক বাড়িঘর হুমকির মুখে পড়েছে।

মশিউর রহমান বাবুল বলেন, এ অপকর্মের মূল হোতা ব্রাহ্মণবাড়িয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহিনুজ্জামান । তার পত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদ ও যোগসাজশে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স ক্যাসেল কনস্ট্রাকশন ও মেসার্স ইসলাম ট্রেডিং কনশন কনস্ট্রাকশন লিঃ স্থানীয় প্রভাবশালীদের নিয়ে তিতাস নদী খনন কাজের নামে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির মহোৎসবে মেতে উঠেছে। এ চক্রটি নদী খনন কাজের নামে কোটি কোটি টাকা লুটে নিচ্ছে। এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ও সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মশিউর রহমান বাবুলসহ স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা। বাড়িঘরসহ স্থাপনা ভেঙ্গে তিতাস নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার কারণে এলাকাবাসির মধ্যে এখন চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। প্রতিবাদে ফুঁসে উঠছে স্থানীয় জনতা।

যদিও ব্রাহ্মণবাড়িয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহীনুজ্জামান তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, নদী খনন কাজের কোন অনিয়ম বা দুর্নীতির সঙ্গে আমি জড়িত নয়। যদি কোনো অনিয়ম করে থাকে তা স্থানীয় প্রভাবশালীদের নিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ক্যাসেল কনস্ট্রাকশন ও ইসলাম ট্রেডিং কনশন কনস্ট্রাকশন করে থাকতে পারেন। তিনি জানান, তারা আমাদের কথা শুনছে না। তাদের মনগড়াভাবে খনন করে যাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ড্রেজার চালক মো. মুছা মিঞা পূর্বপশ্চিমকে জানান, সরকারের আদেশ মোতাবেক তিতাস নদী ড্রেজিং করাসহ নদী থেকে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। কোন ধরণের অনিয়ম হচ্ছে না বলে জানান তিনি। পূর্বপশ্চিম।








সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};