ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
453
সাংস্কৃতিক আগ্রাসন: নীতিমালা চান শিল্পীরা
Published : Friday, 2 November, 2018 at 7:22 PM
সাংস্কৃতিক আগ্রাসন: নীতিমালা চান শিল্পীরা ভারতীয় সিরিয়ালের নেতিবাচক প্রভাবে টালমাটাল বাংলাদেশের সমাজ-সংস্কৃতি। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে অর্থনীতিও। শিল্পী, কলাকুশলীসহ হাজারো মানুষ বেকায়দায় পড়েছে ভিনদেশি এ সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের কারণে। সাধারণ মানুষ ও সুশীল সমাজের আপত্তির পরিপ্রেক্ষিতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ও আজ পর্যন্ত এ বিষয়ে টুঁ শব্দটিও করেনি। তাতে শিল্পীসহ সাধারণ মানুষের মনে বিরাজ করছে এক ধরনের ক্ষোভ। এ বিষয়ে সরকারের দৃষ্টির পাশাপাশি আরও কঠোর নীতিমালা প্রণয়নের দাবি জানিয়েছেন তারা।

অভিনেতা ও নাট্য নির্দেশক মামুনুর রশীদ বলেন, ভারতীয় সিরিয়াল বাংলাদেশে চলা নিয়ে সরকার একটি কমিটি করেছিল। সেই কমিটিতে আমিও ছিলাম। সেখানে বলেছি, এসব সিরিয়াল নিয়ন্ত্রিতভাবে চালানো উচিত। সেই প্রস্তাবনা দেড় বছর ধরে তথ্যমন্ত্রীর টেবিলে পড়ে আছে। সিরিয়ালের আগ্রাসনে বাংলাদেশ নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে সামাজিক সংকট।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে অনেকদিন ধরেই অনেক কথা বলেছি, টক শো, মানববন্ধন ও পত্রপত্রিকায়। কিন্তু কিছুতেই কিছু হলো না! আমরা, শিল্পীরা এ বিষয়ে বরাবরই সোচ্চার। অন্যদিকে সরকার চাচ্ছে না। প্রথম অবস্থায় আমরা বলেছি বন্ধ করে দিতে। এরপর বললাম, নিয়ন্ত্রিতভাবে অফপিক আওয়ারে ভারতীয় সিরিয়াল চালানোর জন্য। সরকার কোনো দাবিই রক্ষা করেনি বলে আক্ষেপ প্রকাশ করেন জনপ্রিয় এ নাট্যব্যক্তিত্ব।

নাট্যকার এজাজ মুন্না বলেন, ভারতীয় সিরিয়াল নিয়ে যে সংকট সৃষ্টি হয়েছে এসব বিষয় থেকে আমরা যেন বেরিয়ে আসতে পারি। বিষয়টা সরকারিভাবে আলোচনার পর্যায়ে আছে। সব নাট্য সংগঠন মিলে তথ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। এসব আলোচনা হলে আমরা বুঝতে পারব, পরবর্তী সময়ে কী হবে। সিদ্ধান্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করাটা বোধহয় সমীচীন হবে না। তবে নাট্যকার পরিচয়ের বাইরে এসে ব্যক্তি মানুষ হিসেবে বলতে পারি, সমান সমান বিনিময় প্রথা থাকা উচিত। যদি ভারতীয় সিরিয়াল এ দেশে চলে তাহলে বাংলাদেশের সিরিয়ালও ভারতে চালাতে হবে। সমতার ভিত্তি প্রতিষ্ঠিত হোক।

নাট্যকার ও অভিনেতা বৃন্দাবন দাস বলেন, এ নিয়ে বহুবার বলেছি, বহু কথা হয়েছে-মন্তব্য করে ফল তো হয়নি! এটা এখন কারা কীভাবে চালায়, কোন নীতিমালায় চালায়, বাংলাদেশে যে যেভাবে মন চাইছে করছে! অবশ্যই এটা দেশের সংস্কৃতির জন্য কতটা শুভকর সেটা মানুষ বলবে। ভালো কিছু হলে চালালে আপত্তি নেই। এটা সমাজের জন্য মঙ্গল, দেশের জন্য মঙ্গল। এভাবে গয়রহভাবে চালানোটা আমাদের সংস্কৃতির জন্য খুব একটা লাভজনক কিছু নয়। এটার নীতিমালা হওয়া উচিত অবশ্যই। আমাদের সংস্কৃতির প্রটেকশন দেওয়ার জন্য। সংস্কৃতিকে রক্ষার জন্য যা করা প্রয়োজন তা অবশ্যই করা উচিত।







Loading...

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};