ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
481
মরদেহের আঙুলেই খুলছে জট
নতুন উপায়ে অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধারে সফলতা
Published : Thursday, 25 October, 2018 at 3:41 PM
নতুন উপায়ে অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধারে সফলতাপ্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও অজ্ঞাতপরিচয় মরদেহ উদ্ধার হয়। কারও পরিচয় মেলে পরিবারের সূত্র ধরে। কারও পরিচয় মেলে ডিএনও রিপোর্টে। আবার অজ্ঞাতপরিচয় হিসেবে অনেকের দাফন করা হয়। তাদের পরিচয় আর মেলে না।

এবার অজ্ঞাত পরিচয় মরদেহ শনাক্তে জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্যের মাধ্যমে নতুন এক উপায় বের করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

প্রথমে ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার যন্ত্রের মাধ্যমে অজ্ঞাত মরদেহের দু’একটি আঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করেন তারা। তাৎক্ষণিকভাবে আঙ্গুলের ছাপ অনলাইনের মাধ্যমে প্রথমে পিবিআইয়ের প্রধান কার্য়ালয়ের সার্ভারে ও পরে নির্বাচন কমিশনের ডাটা সার্ভারে পাঠানো হয়।

বয়স ১৮ বছর এবং জাতীয় পরিচয়পত্র থাকলে মুহূর্তেই অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির নাম, ঠিকানা, বয়সসহ সার্বিক পরিচয় শনাক্ত করা যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই পরীক্ষামূলকভাবে নতুন উপায়ে অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধারে সফলতা পেয়েছে পিবিআই।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) ধানমন্ডির কার্য়ালয়ে এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, ‘জাতীয় পরিচয়পত্রের সূত্র ধরে অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধারে আমাদের প্রচেষ্টা পরীক্ষামূলকভাবে সফল হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘রাজধানীসহ সারাদেশে এ প্রক্রিয়ায় অজ্ঞাত মরদেহ শনাক্তকরণ কার্য়ক্রম শুরু করা সম্ভব হলে অপরাধ দমনে এটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে স্বীকৃতি পাবে।’ তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলতে রাজি হননি তিনি।

পিবিআই’র একাধিক কর্মকর্তা জানান, হত্যা, ধর্ষণ, ডাকাতির শিকার কিংবা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত অজ্ঞাত ব্যক্তির পরিচয় উদ্ধারে পুলিশের বিভিন্ন বাহিনীকে এতদিন ঢাকা মেডিকেল কলেজে স্থাপিত ন্যাশনাল ডিএনএ (ডি-অক্সিরাইবো নিউক্লিক এসিড) প্রোফাইলিং ল্যাবরেটরিতে পাঠানো নমুনা পরীক্ষার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর নির্ভরশীল থাকতে হতো।

ঘটনাস্থল থেকে মরদেহের রক্ত, লালা, চুল, নখ ও ব্যবহার্য় পোশাক পরিচ্ছেদের নমুনা সংগ্রহ করে তা ডিএনএ ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হতো। পরবর্তীতে তার বাবা, মা, সন্তান ও ভাইবোনের ডিএনএ নমুনার সঙ্গে মৃতের নমুনা পরীক্ষা করে তবেই পরিচয় শনাক্ত হতো। এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে লম্বা সময় লেগে যেতো।

জানা গেছে, পিবিআই’র শীর্ষ কর্মকর্তারা অনেক চিন্তাভাবনা করে দ্রুততম সময়ে অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধারের বিকল্প উপায় খুঁজে বের করেন। এ প্রক্রিয়ায় তারা ফিঙ্গার প্রিন্ট মেশিনের মাধ্যমে মরদেহের আঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করে অনলাইনের মাধ্যমে তা পিবিআই’র প্রধান কার্য়ালয়ে পাঠান।

সেই সার্ভার থেকে নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয়পত্র ডাটাবেজ সেন্টারে পাঠানো হয়। মৃতের বয়স ১৮ বছর এবং তার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকলে আঙ্গুলের ছাপের মাধ্যমে মুহূর্তেই তার নাম, ঠিকানা, বয়সসহ সব তথ্য পিবিআই’র সার্ভারে চলে আসে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত আড়াই বছরে অধিকাংশ সময় পিবিআই কর্মকর্তারা অপরাধী শনাক্ত করতে সন্দেহভাজন অপরাধীর ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্রের সূত্র ধরে সফলতা পেয়েছেন।

সম্প্রতি তারা একই উপায়ে দুটি অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় উদ্ধার করেছেন। ঢামেক মর্গে যন্ত্রটির কার্যক্ষমতা পরীক্ষা করে সফলতা পাওয়া গেছে বলে জানান পিবিআই কর্মকর্তারা।




Loading...

সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};