ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন অ্যাপস কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
নাঙ্গলকোটে কোপাকোপিতে এবার ছাত্রলীগ সভাপতি আহত
Published : Monday, 5 March, 2018 at 12:00 AM, Update: 05.03.2018 2:11:50 AM
নাঙ্গলকোটে কোপাকোপিতে এবার ছাত্রলীগ সভাপতি আহতনিজস্ব রিপোর্ট।। কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবদুর রাজ্জাক সুমনের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে গুরুতর আহত করেছে ছাত্রলীগেরই আরেকটি গ্রুপ। রবিববার দুপুর পৌনে ২টার দিকে নাঙ্গলকোট উপজেলা সদরে সোনালী ব্যাংকের সামনে মোল্লার হোটেলে দুপুরের খাবার খাওয়ার সময় পেছন থেকে চাপাতি দিয়ে উপর্যুপুরি কোপানো হয় তাকে। এতে তার মাথায়, বুকের দুই পাশে এবং পিঠে আঘাত লাগে। বর্তমানে সে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আবদুল মালেকের ভাতিজা আনোয়ার হোসেন মিশুর নেতৃত্ব প্রায় ১২ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী এ নারকীয় হামলা চালায়। সাথে ছাত্রলীগের কর্মী জিসানসহ ৮/১০ হেলমেট পরিহিত ছিলো। কালো রংঙ্গের হাইয়েক্স করে তারা এসে তারা এ হামলা করে বলে জানায় আহত উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সুমন।  হামলার প্রতিবাদে যুবলীগ সভাপতি আবদুল মালেক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন কালুর বাড়িতে হামলা চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ কর্মীরা।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, হামলাকারীদের হাতে চাইনিজ কুড়াল ও পিস্তল দেখা যায়। হামলায় অংশ নেয় ১২ থেকে ১৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী। হামলাকারীদের মুখ কাপড় দিয়ে বাধা ও হ্যালমেট পরা ছিল। এর মধ্যে তিনজনকে চিহ্নিত করা গেছে।
হামলাকারীদের নেতৃত্বে ছিল উপজেলা যুবলীগের আপন ভাতিজা মিশু। চিহ্নিত হওয়া বাকি দুজন হলো- জিসান ও মহিন। তারা খাবার টেবিলের পিছন দিক থেকে এসে উপর্যৃপুরি কোপাতে থাকে। খাবার টেবিল থেকে নিচে পড়ে গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।
সূত্র জানায়, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির মধ্যে পূর্ব থেকে বিরোধ ছিল। এরই সূত্র ধরে এই ঘটনার সূত্রপাত। এর আগে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন মিশুকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। ঐ দিন বিকালে নাঙ্গলকোট রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় মোল্লা হোটেলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যায় তাকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুর্বৃত্তরা তাকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। সে সময় পুলিশ জানিয়েছিল, স্থানীয় মাসুম ও মিশুর পক্ষের মধ্যে মারামারির এ ঘটনা ঘটে। তবে মিশুর অভিযোগ ছিল নাঙ্গলকোট উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন এ হামলায় ইন্দন দিয়েছিল। মিশু নাঙ্গলকোট উপজেলার পূর্ব দইয়ারা কোদালিয়া গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।
১৮ ফেব্রুয়ারি বিকালের এ ঘটনার আগে দুপুরে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের আবদুল্লা হোটেল-২ এর সামনে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আনেয়ার হোসেন মিশু ও তার কয়েকজন সহকর্মী মিলে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অর্তকিতভাবে হামলা করে নাঙ্গলকোট হাছান মেমোরিয়ালডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম রুবেল (২১) কে গুরুতরভাবে আহত করে। আহত অবস্থায় জহিরুল ইসলাম রুবেলকে প্রথমে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
এসব ঘটনার ধারাবাহিকতায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবদুর রাজ্জাক সুমনের উপর গতকালের হামলার ঘটনা ঘটে।
কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো: আবুল হাসেম জানিয়েছেন, সুমনের দুই কাধে, মাথায়, চোখের নিচে, ডান গালে ও শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মাথায় কোপের আঘাত আছে।  বর্তমানে তার জন্য রক্তের প্রয়োজন। যথা সময়ে রক্তের ব্যবস্থা করা হলে আমাদের হাসপাতালে চিকিৎসা সম্ভব।
এদিকে ছাত্রলীগ সভাপতির উপর হামলার ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে শত শত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী নাঙ্গলকোটে জড়ো হয়। তারা এ ঘটনায় পৌর মেয়র আবদুল মালেক ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে দায়ী করে স্লোগান দিতে থাকে। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা যুবলীগ সভাপতি মালেক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুউদ্দিন কালুর বাড়িতে ভাঙচুরের চেষ্টা চালায়। নেতা-কর্মীরা তাদের বাড়ি লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
নাঙ্গলকোটে কোপাকোপিতে এবার ছাত্রলীগ সভাপতি আহত
এ ঘটনায় নেতাকর্মীরা বাজারে বিক্ষোভ করেছে। বাজারের সব দোকানপাট বন্ধ ছিল।
কুমিল্লার নাঙ্গলকোট থানা ছাত্রলীগ সভাপতি আবদুর রাজ্জাক সুমনের ওপর হামলার প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। নাঙ্গলকোটে রেললাইনের ওপর গাছের গুড়ি ফেলে ও আগুন দিয়ে হাজার হাজার নেতাকর্মী অবস্থান নেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আবদুর রাজ্জাক সুমনের ওপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে স্লোগান দেন। ঢাকা চট্টগ্রাম রেলপথের নাঙ্গলকোট এলাকায় রেললাইন প্রায় ১ঘন্টা অবরোধ রাখে।  এসময় ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী কর্ণফুলি এক্সপ্রেস ট্রেন আটকা পরে।  পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করে।
নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, কুমিল্লার পুলিশ লাইনে ছিলাম নাঙ্গকোটে এসে বিস্তারিত শুনেছি। শাহরিয়ার মিশু ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সুমনকে মেরে আহত করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব।  
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


Loading...

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৬
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
কার্যালয়: কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশন, তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়,কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ফোন: +৮৮০ ৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২৪৪৩, +৮৮০ ১৭১৮০৮৯৩০২
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};