ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন অ্যাপস কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
90
একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প
Published : Wednesday, 13 September, 2017 at 12:00 AM
একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পতৃণমূলের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সংগঠিত করে তাদের সঞ্চয়ে উৎসাহ দেয়া, সদস্য সঞ্চয়ের বিপরীতে সমপরিমাণ অর্থ বোনাস দেয়া, সদস্যদের প্রশিক্ষণ, অর্থনৈতিক কর্মকা- পরিচালনায় পুঁজি গঠনে সহায়তা এবং আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করাসহ বহুমুখী কর্মকা- পরিচালনার উদ্দেশ্যে ১৯৯৮ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার ‘একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প’ হাতে নেয়। বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকার ক্ষমতায় এসে ২০০১ সালে প্রকল্পটি বন্ধ করে দেয়। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে প্রকল্পটি নতুন করে চালু করা হয়। বর্তমানে দেশের ৬৪ জেলার ৪৮৫টি উপজেলায় চার হাজার ৫০৩টি ইউনিয়নের ৪০ হাজার ৫২৭টি ওয়ার্ডে প্রকল্পের কার্যক্রম চলছে। ওয়ার্ডগুলোর প্রতিটি গ্রামে ৬০টি গরিব পরিবারের সমন্বয়ে একটি গ্রাম উন্নয়ন সমিতি গঠনের মাধ্যমে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। ২৫ লাখ দরিদ্র পরিবার এ প্রকল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত। প্রকল্পের আওতায় সরকার তিন হাজার ১৩২ কোটি টাকা ব্যয় করছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে এই প্রকল্পে দেখা দিয়েছে অচলাবস্থা। চার মাস ধরে নতুন ঋণ দেয়া বন্ধ। প্রকল্পটিকে স্থায়ী রূপ দিতে তিন বছর আগে গঠন করা হয়েছিল পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক। এক বছর আগে প্রধানমন্ত্রীকে দিয়ে বিশেষায়িত এ ব্যাংকের শতাধিক শাখাও উদ্বোধন করানো হয়। অর্ধশতাধিক লোক নিয়োগ দেয়া হলেও এখনো কোনো শাখা কার্যকর হয়নি। ফলে ভেস্তে যেতে বসেছে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভাগ্যোন্নয়নের চেষ্টা। একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের একটি মডেল ছিল। সামাজিক সুরক্ষার মাধ্যম হিসেবে দেশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে এর আওতায় এনে তহবিল গঠন ও প্রয়োজনীয় ঋণদানের মাধ্যমে উচ্চ সুদের ঋণ ও কিস্তির জ্বালা থেকে তাদের মুক্ত করাই ছিল এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য। প্রকল্পের মডেলে বলা হয়েছিল, দেশের দরিদ্র জনগণ মাসে ২০০ টাকা জমা দিলে সরকার ২০০ টাকা বোনাস দেবে। ৬০ জনের একটি সমিতির মূলধন এক বছরে সাড়ে চার লাখ টাকা হওয়ার কথা। এসব সমিতির স্বাবলম্বী হওয়া কথা। কিন্তু বাস্তবে এসব কিছুই হয়নি। প্রকল্পটি নিবিড় পরিবীক্ষণ করে আইএমইডির নিয়োগ করা হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট রিসার্চ সেন্টারের অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের নেতৃত্বে একটি সমীক্ষক দল। সমীক্ষক দলটি এ প্রকল্পে বেশ কিছু ঝুঁকি চিহ্নিত করে।একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চিন্তা এসেছিল দেশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের চিন্তা থেকেই। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভাগ্যোন্নয়নের কোনো প্রকল্প থেকেই সরে আসা উচিত হবে না। এ প্রকল্পের সব স্থবিরতা দূর করে কার্যক্রম নতুন উদ্যমে শুরু করতে হবে।






© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৬
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
কার্যালয়: কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশন, তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়,কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ফোন: +৮৮০ ৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২৪৪৩, +৮৮০ ১৭১৮০৮৯৩০২
ই মেইল: hridoycomilla@yahoo.com, newscomillarkagoj@gmail.com,  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশান।
তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : hridoycomilla@yahoo.com Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};