ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন অ্যাপস কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
84
রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান
Published : Tuesday, 12 September, 2017 at 12:00 AM
রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানরোহিঙ্গা সংকটের শুরু ১৯৭৮ সালে। প্রায় হাজার বছর ধরে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে বাস করছে তারা। জন্মগতভাবেই তারা সেখানকার নাগরিক। কিন্তু দেশটির সরকার এই স্বাভাবিক বিষয়টিকে মানতে নারাজ। ১৯৮২ সালে প্রণীত নাগরিকত্ব আইনে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্বের অধিকার অস্বীকার করা হয়। এরপর সংকট ক্রমে তীব্র হতে থাকে।
এ সংকটের পেছনে অভ্যন্তরীণ কারণ রয়েছে, আঞ্চলিক ভূ-রাজনৈতিক কারণও রয়েছে। শক্তিধর কিছু রাষ্ট্র ও কিছু আঞ্চলিক বা সম্প্রদায়ভিত্তিক সংস্থার ভূমিকা রয়েছে এর পেছনে। ফলে গত প্রায় তিন দশকে সমস্যাটি ক্রমেই বড় হয়েছে। প্রায়ই ‘সন্ত্রাসবিরোধী’ অভিযানের নামে রোহিঙ্গাদের দেশছাড়া করার অভিযানে নামে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। সর্বশেষ অভিযানের ঘটনাটি ঘটে গত ২৫ আগস্ট। এ কারণে নতুন করে আরো প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে।
কক্সবাজারে বিপর্যয়কর এক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পানি ও খাবার অপ্রতুল; প্রাতঃকৃত্য সারতে হচ্ছে মহাসড়কের দুই পাশে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর কাছ থেকে সাহায্য এখনো পাচ্ছে না তারা। বড় ভরসা এখন স্থানীয় ও বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে এগিয়ে আসা মানুষ। কেউ খিচুড়ি, কেউ কাপড়-চোপড়, চাল-ডাল, তেল-লবণ, সবজি দিয়ে সাহায্য করছে তাদের। হিন্দু-মুসলিম নির্বিশেষে সব রোহিঙ্গাকেই সাহায্য করছে তারা। এটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও মানবতার বিরল দৃষ্টান্ত নিঃসন্দেহে। বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষ তাদের মানবিক দায়িত্ব পালন করছে যথাযথভাবে।
বিশ্লেষকদের ধারণা, এ সংকটের পেছনে আন্তর্জাতিক শক্তিগুলোও রয়েছে। রাখাইন রাজ্যের খনিজ সম্পদ ও ভৌগোলিক অবস্থানকে কেন্দ্র করে তাদের প্রতিযোগিতা এ পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য অনেকাংশে দায়ী। রোহিঙ্গা-রাখাইন বিরোধকে কাজে লাগিয়ে বিদেশি ক্রীড়নকরা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে চায়। রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান করতে হলে কূটনৈতিক তৎপরতার বিকল্প নেই। বাংলাদেশ কূটনৈতিকভাবেই পরিস্থিতি মোকাবেলার সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। বাংলাদেশ শুধু লাখ লাখ রোহিঙ্গার বোঝা ঘাড় থেকে নামাতে চায় না, তাদের নিজ দেশে নিরাপদ পরিবেশে ফেরত পাঠিয়ে সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানও চায়। এ কাজ সফলভাবে করতে হলে সব বন্ধু রাষ্ট্রের সমর্থন জোগাড় করতে হবে। বিশেষ করে চীন ও ভারতকে এ কথা বোঝাতে হবে যে এ সমস্যা তাদের জন্যও মারাত্মক ক্ষতির কারণ হবে। চীনের সমর্থন থাকায় মিয়ানমার অনেক ন্যায্য প্রস্তাব অগ্রাহ্য করছে। আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার স্বার্থে চীনের নিয়ামক ভূমিকা থাকা জরুরি। এ প্রেক্ষাপটে চীনে বিশেষ কূটনৈতিক টিম পাঠানোর কথা বলছেন অনেকে। এ প্রস্তাব আমলে নেওয়া উচিত। ভারতের সঙ্গেও দূতিয়ালি আবশ্যক। রাশিয়ার সঙ্গেও নিবিড় আলোচনা দরকার। ইরানসহ ওআইসি দেশগুলোর সমর্থনও জরুরি। তবে এ সংস্থাটির সহায়তার ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে অনেকে। ভূ-রাজনৈতিক বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের ও ইইউভুক্ত দেশগুলোর আস্থাও অর্জন করতে হবে। বাংলাদেশ এর মধ্যেই ইতিবাচক কূটনৈতিক সাড়া পেয়েছে। নতুন-পুরনো সব বন্ধু রাষ্ট্রকে আস্থায় নিয়ে কূটনৈতিক উদ্যোগে সরকার সফল হবে বলে আমরা আশা করি।





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৬
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
কার্যালয়: কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশন, তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়,কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ফোন: +৮৮০ ৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২৪৪৩, +৮৮০ ১৭১৮০৮৯৩০২
ই মেইল: hridoycomilla@yahoo.com, newscomillarkagoj@gmail.com,  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশান।
তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : hridoycomilla@yahoo.com Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};