ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন অ্যাপস কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
95
বিদেশে অর্থপাচার
Published : Thursday, 20 April, 2017 at 12:00 AM
বিদেশে অর্থপাচারকিছু অসাধু ব্যবসায়ীর অর্থপাচার ও অবৈধ অর্থ উপার্জনের মাধ্যম হয়েছে বন্ড সুবিধা। দেশের শতভাগ রপ্তানিমুখী শিল্প উৎসাহিত করতে বিশেষ কিছু শর্তে যে সুবিধা দেয়া হয়, তাকে বলা হয় বন্ড সুবিধা। এই সুবিধায় বিদেশ থেকে বিনা শুল্কে কাঁচামাল এনে নিজস্ব বন্ডেড ওয়্যারহাউসে রেখে পুরোটাই সংশ্লিষ্ট কারখানায় ব্যবহার করার কথা। কোনোভাবেই এসব পণ্য খোলাবাজারে বিক্রি করা যাবেনা। বাস্তবতা হচ্ছে, অনেক প্রতিষ্ঠানই সরকারের এসব বাধ্যবাধকতা মানে না। আবার বন্ড সুবিধার অপব্যবহার করে বিদেশে অর্থ পাচার করছে এমন অভিযোগ আছে অনেক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। অস্তিত্বহীন অনেক প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি উৎপাদনে থাকা অনেক প্রতিষ্ঠানও বন্ড সুবিধার আওতায় কাঁচামাল আমদানির নামে টাকা পাচার করে থাকে বলে অভিযোগ রয়েছে। বিধিনিষেধ না মেনে বন্ড সুবিধার আওতায় আনা কাগজ ও কাগজজাতীয় মালামাল বিনা শুল্কে আমদানি করে তা খোলাবাজারে বিক্রি করে দেয় অনেক প্রতিষ্ঠানই। দেশের কাগজকলে এর বিরূপ প্রভাব পড়েছে। তৈরি হয়েছে অসম প্রতিযোগিতা।
অস্তিত্বহীন অনেক প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি উৎপাদনে থাকা পাঁচ শতাধিক প্রতিষ্ঠান বন্ড সুবিধার আওতায় কাঁচামাল আমদানির নামে টাকা পাচার করেছে বলে অভিযোগ আছে। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর গত দুই বছরে কয়েক হাজার প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে বন্ড সুবিধার অপব্যবহারের প্রমাণ পেয়েছে। মিথ্যা তথ্যে বিদেশে অর্থপাচার ও পণ্য এনে খোলাবাজারে বিক্রির অভিযোগে পাঁচ শতাধিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। তার পরও অসাধু ব্যবসায়ীদের অপকর্ম বন্ধ হয়নি। অভিযুক্ত অনেক প্রতিষ্ঠান মিথ্যা তথ্য উল্লেখ করে জাল কাগজপত্র তৈরি করে তা ব্যাংক ও এনবিআরে জমা দিয়েছে। মিথ্যা তথ্য দিয়েছে আমদানি করা পণ্যের নাম, পরিমাণ ও মূল্য সম্পর্কে। পণ্য উৎপাদনে যে পরিমাণ কাঁচামাল প্রয়োজন তার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি আমদানি করে অতিরিক্ত পণ্য খোলাবাজারে বিক্রি করে দিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। আবার বিদেশে যেসব প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে পণ্য আমদানির নামে এলসি খুলে অর্থ পাঠানো হয়েছে, এসব প্রতিষ্ঠানের বেশির ভাগই অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানের মালিকের। বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমঝোতার মাধ্যমেও অর্থ পাচার করা হয়েছে।
বন্ড সুবিধার সবচেয়ে বেশি অপব্যবহার হচ্ছে কাগজজাতীয় পণ্য ও প্লাস্টিক দানা আমদানি ও ব্যবহারে। দেশের ৮৫টি কাগজ কারখানায় উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্য স্থানীয় শিল্পের কাঁচামালের চাহিদা পূরণে সম হলেও বিদেশ থেকে অনেক পণ্য আমদানি করা হচ্ছে। এতে সরকার প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তিগ্রস্ত হচ্ছে দেশের কাগজশিল্প। কাজেই এ বিষয়ে নজরদারি বাড়িয়ে বন্ড সুবিধার অপব্যবহার বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৬
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
কার্যালয়: কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশন, তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়,কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ফোন: +৮৮০ ৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২৪৪৩, +৮৮০ ১৭১৮০৮৯৩০২
ই মেইল: hridoycomilla@yahoo.com, newscomillarkagoj@gmail.com,  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশান।
তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : hridoycomilla@yahoo.com Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};