ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন অ্যাপস কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
চান্দিনায় সংরক্ষিত ছুটি অপব্যবহার করলেন প্রধান শিক্ষকরা
বিশেষ প্রতিবেদক।
Published : Saturday, 24 December, 2016 at 9:46 PM



চান্দিনায় সংরক্ষিত ছুটি অপব্যবহার করলেন প্রধান শিক্ষকরাচান্দিনা উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সংরক্ষিত ছুটির অপব্যবহার করেছেন প্রধান শিক্ষকরা। সরকারি নীতিমালার তোয়াক্কা না করে ছুটির দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি করার জন্যই ওই অপকৌশল অবলম্বন করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ২৩ ডিসেম্বর শুক্রবার ও ২৫ ডিসেম্বর বড় দিন উপলক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি। ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত শীতকালীন অবকাশ। মাঝখানে ২৪ ডিসেম্বর (শনিবার) বিদ্যালয় খোলা থাকার কথা ছিল। কিন্তু উপজেলার বেশিরভাগ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শনিবার বিদ্যালয়ে সংরক্ষিত ছুটি ঘোষণা করে ২৩ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত একটানা বন্ধের ফাঁদ তৈরী করে। ফলে ভর্তি কার্যক্রমেও এর ব্যাপক প্রভাব পড়ে।
উপজেলা শিক্ষা অফিসের রুটিন থেকে জানা যায়, ১৯ ডিসেম্বর বিদ্যালয়গুলোর বার্ষিক পরীক্ষা শেষ হয়। দীর্ঘ ছুটি ভোগ করতে তড়িঘড়ি করে ওই বিদ্যালয়গুলো মাত্র ২ দিন পর ২২ ডিসেম্বর ফলাফল ঘোষণা করে। ফলাফল নিয়েও অভিভাবকরা প্রশ্ন তুলেছেন।
এদিকে বছরের শেষ দিকে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের স্কুলে ভর্তির জন্য যান। শনিবার অনেক অভিভাবক স্কুলে গিয়ে ফিরে এসেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।
সরেজমিনে উপজেলার চান্দিনা আদর্শ, পূর্ব বেলাশ্বর, ছায়কোট, বিশ্বাস, রারিরচর, মধুসাইর, আলিকামোড়া, গড়ামাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখাগেছে ওই বিদ্যালয়গুলো বন্ধ। খবর নিয়ে জানা যায় বিদ্যালয়গুলোতে সংরক্ষিত ছুটি ঘোষণা করেছেন প্রধান শিক্ষকরা। এছাড়াও উপজেলার বেশিরভাগ বিদ্যালয়ই শনিবার সংরক্ষিত ছুটির কারণে বন্ধ ছিল বলে জানাযায়।
এব্যাপারে চান্দিনা আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. কাউছারুজ্জামান জানান, ‘আমাদের স্কুলে সংরক্ষিত ছুটি। আমরা বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসকেও অবহিত করেছি।’
এব্যাপারে ছায়কোট, পূর্ব বেলাশ্বর, তুলাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের সাথে কথা বলেও একই কথা জানাগেছে। কিন্তু সংরক্ষিত ছুটি নেওয়ার নীতিমালা উপেক্ষিত হয়েছে কিনা- প্রশ্ন করা হলে তাদের কাছ থেকে কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।
এব্যাপারে চান্দিনা সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আম্বিয়া খাতুন জানান, ‘আমার সাথে যেসব প্রধান শিক্ষক এবিষয়ে যোগাযোগ করেছে আমি তাদেরকে সংরক্ষিত ছুটি ঘোষণা করতে না করেছি।’
এব্যাপারে সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবদুল কুদ্দুস প্রধান জানান, ‘বন্ধ ঘোষণা করতে না করেছি। তারপরও যারা সংরক্ষিত ছুটি ঘোষণা করেছে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’
এব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবদুল্লাহ্ আল-মামুন জানান, ‘সংরক্ষিত ছুটি ভোগের নীতিমালা না মেনে যারা বিদ্যালয় বন্ধ রেখেছে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এবিষয়ে আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।’
এব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. নূরুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।




সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৬
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
কার্যালয়: কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশন, তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়,কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ফোন: +৮৮০ ৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২৪৪৩, +৮৮০ ১৭১৮০৮৯৩০২
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ কাজী অহিদুজ্জামান ম্যানশান।
তৃতীয় তলা, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};